সর্বশেষ

বিদ্রোহের হুমকি দিচ্ছেন বার্সেলোনার খেলোয়াড়েরা

স্পোর্টস ডেস্ক:
প্রতিপক্ষের মাঠে টানা সাত ম্যাচ জয়হীন বার্সেলোনা কাল স্বস্তি পেয়েছে। মেসি-ডেমবেলেকে ছাড়া খেলতে নেমেও গেটাফেকে ২-০ গোলে হারিয়ে এসেছে তারা। মাদ্রিদে পাওয়া এই জয়ের পর আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে কাতালানরা। তবে জয়ের স্বাদও ক্ষোভ কমাতে পারেনি জেরার্ড পিকেদের। খেলোয়াড়দের সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমে মিথ্যা খবর ছড়ানোর ফল ভালো হবে না বলে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন এই ডিফেন্ডার।

গেটাফের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে দলের অধিনায়কদের একজন হিসেবে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন। ম্যাচের আগের দিন বার্সেলোনার খেলোয়াড়েরা সবাই একত্র হয়েছিলেন ডিনারের জন্য। আবারও এমন ডিনার করতে দেখা যাবে কিনা প্রশ্ন করা হয়েছিলে পিকেকে। সে প্রশ্নের উত্তরেই সব ক্ষোভ উড়িয়ে দিয়েছেন পিকে, ‘দলের সবাই ডিনারের ব্যবস্থা করেছিল। এটা সবার জন্যই খুব ভালো ছিল। আমাদের সবাইকে একত্র হতে হবে। আর আমি যখন একত্র হওয়ার কথা বলি, তখন সমর্থক ও বোর্ডকে অংশ হওয়ার কথা বলছি।’

বার্সেলোনা ক্লাবের আশীর্বাদপুষ্ট কাতালান পত্রিকা মুন্ডো দেপোর্তিভোতে একটি মন্তব্য প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে। সেখানে খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করা হয়েছে। পিকের দাবি সে খবরগুলো বার্সেলোনা বোর্ডের ইঙ্গিতেই করা হয়েছে, ‘আমরা রাগ করতে চাই না। একজন যখন রাগতে চায় না তখন ঝগড়াও হয় না। আমরা এ ক্লাবকে জানি এবং আমরা জানি এই পত্রিকাগুলো কারা। এবং যদিও নাম লেখা নেই, তবু আমরা জানি এসব প্রতিবেদন আসলে কে লিখে। আমরা রাগ করতে চাই না। আমরা শুধু মাঠে নামতে চাই এবং জিততে চাই। আশা করব যেখানে কোনো ঝামেলা নেই সেখানে যেন কেউ লড়াই বাধানোর চেষ্টা না করে। আমরা সেটা চাই না। এ ক্লাবের সংহতি ধরে রাখা দরকার। তা না হলে নিজেদের ক্ষতি করব আমরা।’

সপ্তাহের শুরুতে মুন্ডো দেপোর্তিভোতে জাভি বস্ক একটি কলাম লিখেছেন। সেখানে বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের প্রবল প্রতিপত্তির কথা বলা হয়েছে। বলা হয়েছে এ মৌসুমে ক্লাবের দুরবস্থার পেছনে খেলোয়াড়েরা দায়ী। মাঠের পারফরম্যান্স চিন্তা করলে জাভির কথা মিথ্যা নয়। কিন্তু প্রতিবেদনে আরও কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্তের দায়ও খেলোয়াড়দের ওপর দেওয়া হয়েছে। জাভি বলেছেন, দলের সঙ্গে সাংবাদিকদের যাওয়ার রীতি খেলোয়াড়রা বন্ধ করেছেন। তিতো ভিলানোভার (সাবেক কোচ) উত্তরসূরি কে হবেন সে সিদ্ধান্তও নাকি খেলোয়াড়েরা নিয়েছেন। সাবেক একাডেমি প্রধান পেপ সেগুরাকেও নাকি পিকেরা ছাঁটাই করেছেন। নেইমারকে কেনার জন্য ওউসমানে ডেমবেলের খুঁত বের করার দোষও খেলোয়াড়দের কাঁধে তুলে দেওয়া হয়েছে সে প্রতিবেদনে।

এমন এক প্রতিবেদন প্রকাশের পরই সবাই মিলে ডিনার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন পিকেরা। বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের ধারণা, তাঁদের ঘাড়ে সব দোষ দিয়ে নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে চায় বোর্ড। ক্লাবকে সে সুযোগ দিতে চাচ্ছে না খেলোয়াড়েরা। এ কারণেই ম্যাচের পরই বোর্ডকে সবার সামনে সতর্ক করে দিলেন পিকে।

আরও