ব্রিটেনে শামিমার ফেরার কোন সম্ভাবনা নেই : ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

লন্ডন অফিস:
আইএসে যোগ দেওয়া বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ শামীমা বেগমকে যুক্তরাজ্যে ফিরিয়ে আনার কোনও সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিতি পাটেল। তিনি বলেন,আমাদের দেশের ক্ষতি করতে পারে এমন কাউকে প্রবেশের অনুমতি আমরা দিতে পারি না।’

আইএস-এর জিহাদি উন্মাদনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে যুক্তরাজ্য থেকে পালিয়ে সিরিয়ায় গিয়েছিল শামীমা। জঙ্গি বিয়ে করে জিহাদি সন্তান জন্ম দেওয়ার জন্য যে প্রচারণা চালিয়েছিল আইএস, শামীমা তারই বলি হয়েছিল। নেদারল্যান্ডস থেকে সিরিয়ায় যাওয়া এক জঙ্গিকে বিয়ে করেছিল সে। দুইবার গর্ভপাতের শিকার হওয়ার পর সিরিয়ার শরণার্থী শিবিরে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেয় সে। জেরাহ নামের সেই পুত্র সন্তানও আর বেঁচে নেই।

ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের কাজ হচ্ছে দেশকে নিরাপদ রাখা। আমরা এমন কাউকে চাই না যে ক্ষতি করার উদ্দেশে আমাদের দেশ ছেড়ে চলে গিয়েছিল।

ব্রিটিশ আইন অনুযায়ী কোনও ব্যক্তির নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া সম্ভব কিন্তু তাকে নাগরিকত্বহীন করা যাবে না। চলতি বছরের প্রথম দিকে পূর্ববর্তী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদও শামীমার নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার পক্ষে ছিলেন। প্রিতি পাটেলও একই রকম ভুমিকা রাখছেন। তবে বাংলাদেশ সরকারও তাকে প্রবেশাধিকার দিতে রাজি নয়।

সম্প্রতি আটক শিবির থেকে শামীমা বলেন, তার মানসিক অবস্থা ভালো নয়। তার দাবি, আইএস থেকে ফিরে এসেছেন তিনি। ব্রিটেনেই তার জন্ম ও বেড়ে ওঠা। সেখানেই ফিরতে চান তিনি। শামীমার মতো তুবা গুন্ডালও ব্রিটিশ নাগরিক। পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত এই নারীও ফিরে আসতে চান যুক্তরাজ্যে। তিনি বলেন, ‘আমি আদালতের মুখোমুখি হতে চাই। আমি চাই সরকার আমাকে মাফ করে আরেকটা সুযোগ দিক।

আরও