ভূয়া পরিচয়ে কোন নাগরিককে ওসমানীনগরে শিক্ষকতার সুযোগ দেয়া হবেনা

সুরমা নিউজ:
বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি দেশের বিভিন্ন উপজেলায় ভূয়া বা অবৈধ পন্থায় নাগরিক সনদ প্রদর্শনের মাধ্যমে প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকতা পেশার লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের সংবাদ পাওয়া গেছে। এর ভিত্তিতে আজ ওসমানিনগর উপজেলা সহকারী শিক্ষক সমিতি এক জরুরী সভার আহবান করে।

সমিতির উপজেলা শাখার সভাপতি অজয় দেবের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জুনেদ আহমদের উপস্থাপনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সমিতির জেলা কমিটির সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি ও বর্তমান উপদেষ্টা অজয় দে, উপজেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ধন মিয়া, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান চৌধুরি। সভায় তাৎক্ষণিকভাবে সমিতির প্রতিটি ইউনিয়নের সভাপতি/সধারণ সম্পাদক ও সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করে ওসমানি নগরে ভূয়া নাগরিক সনদের পরীক্ষার্থী আছে কি না তা নিশ্চিত করা হয়।

এখন পর্যন্ত কোন ভূয়া পরীক্ষার্থীর সন্ধান না পাওয়ায় সমিতির তৃণমূল পর্যায়ের সকল শিক্ষকদের এ বিষয়ে নজর রাখা এবং এলাকাবাসিকে সচেতন থাকার জন্য জনমত তৈরীর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। প্রতিটি ইউনিয়ন কমিটির মাধ্যমে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের এ বিষয়ে অবগত করার জন্য প্রতিটি ইউনিয়ন কমিটি ও শিক্ষকদের আহবান জানানো হয়। তারপরও যদি কোন ভূয়া বা অস্থানীয় নাগরিক ভাইভা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার খবর পাওয়া যায় তাৎক্ষনিকভাবে তা উপজেলা কমিটিকে জানানোর জন্য বক্তারা মত প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে প্রয়োজনে ডিপিও/ ডিডি মহোদয় বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে। সভায় উপজেলার শিক্ষিত বেকারদের নাগরিক অধিকার সুরক্ষায় সর্বাগ্রে উপজেলা সহকারী শিক্ষক সমিতি কাজ করবে বলে মত পোষন করা হয়।

আরও