টরন্টোতে খেলাঘরের আড্ডা

গত ৩ নভেম্বর বাংলাদেশের শিশু-কিশোর সংগঠন খেলাঘরের প্রাক্তনীরা এক আড্ডার আয়োজন করেন। নগরীর মীজান কমপ্লেক্সে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রাক্তন খেলাঘরিয়ানরা মেতে ওঠেন ছোটবেলার সেইসব দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করে।
আড্ডাটি শুরু হয় ঠিক সাড়ে চারটায়। পরিচয়পর্ব শেষে উপস্থিত খেলাঘরিয়ান তাদের স্মৃতিচারণ করেন। যারা খেলাঘরের সাথে যুক্ত ছিলেন না তারা শিশুদের নিয়ে বিভিন্ন কাজে সম্পৃক্ততার কথা তুলে ধরেন এবং নব উদ্যমে কানাডায় পরবর্তী প্রজন্মের জন্য কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। সকলেই আন্তরিকভাবে খেলাঘরের উদ্যোগে সমর্থন ও সক্রিয় সহযোগিতার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।
অনুষ্ঠানে সুমন সাইদ, মুক্তি প্রসাদ, বিপ্লব কুমারের সঙ্গীত পরিবেশনার পাশাপাশি দিলারা নাহার বাবুর কন্ঠে চমৎকার আবৃত্তি ও সফিক আহমেদের “বিদ্রোহী” কবিতার অংশবিশেষের আবৃত্তি সবাইকে চমকিত করে। বিশেষ করে প্রাক্তন খেলাঘরিয়ানদের সমবেত কন্ঠে খেলাঘর সঙ্গীত ‘আমরা তো সৈনিক’ এর পরিবেশনা এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি করে। টরন্টোর প্রিয়মুখ হাসান মাহমুদ, দেলোয়ার এলাহী, মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ দুলালসহ উপস্থিত টরন্টো সাংস্কৃতিক অঙ্গনের উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিবর্গ তাদের মূল্যবান বক্তব্য প্রকাশ করেন। আরও বক্তব্য রাখেন, আরিফ হোসেন বনি, সুমন সাঈদ, জাহিদ হোসেন, শওকত হোসেন, ফরিদা হক, সাঈদা বারী, মেরী রাশেদীন, মৌ মধুবন্তী, নাজনীন আকবর, রতন রায়, হোসনে আরা জেমী, রেখা হাবিবুল্লাহ, এলিনা হাওলাদার, এ এম এম তোহা, মম কাজী, মাশহুদা ইসলাম, শাপলা শালুক প্রমুখ। বক্তারা সবাই খেলাঘরের এই নতুন পথচলায় এবং শিশুদের নিয়ে কাজ শুরুর এই প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন।

আড্ডার সর্বশেষ বক্তা ছিলেন লেখক, দার্শনিক, মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব কবি আসাদ চৌধুরী। অত্যন্ত বিচক্ষন দৃষ্টিভঙ্গি থেকে তিনি বলেন বাংলাদেশ, কানাডা, ভাষা, শিশু, ইতিহাস, রাজনীতি এবং অভিবাসনের যত কথা, সেই সাথে হারিয়ে যান খেলাঘরের সাথে দীর্ঘদিনের সম্পৃক্ততার স্মৃতিচারণে। তিনি তাঁর বক্তব্য শেষে বলেন- ছেলেমেয়েরা বড় হয় বাবা মায়ের স্বপ্ন গায়ে মেখে। আসাদ চৌধুরী তাঁর স্বপ্নচারী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে উপস্থিত দর্শকদের যে ঘোরের মাঝে নিয়ে যান, তা কাটে অত্যন্ত প্রানোচ্ছ্বল “আমরা করব জয়” গানটির ইংরেজী ও বাংলা পরিবেশনের মাধ্যমে।
সবশেষে জামিল বিন খলিল ব্যাখ্যা করেন তাদের পরবর্তী পরিকল্পনা এই “খেলাঘর কানাডা”কে ঘিরে। শিশুদের নিয়ে কেক কাটার মাধ্যমে শেষ হয় টরন্টোতে আয়োজিত প্রথম খেলাঘর আড্ডা।

আরও