সিলেটে দুই শিশুকে লন্ডন নেয়ার প্রলোভনে ১৩ লাখ টাকা আত্মসাৎ, গ্রেফতার ১

সিলেটের বিশ্বনাথে দুই শিশুকে যুক্তরাজ্যে প্রেরণের কথা বলে এক নারীর ১৩ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে ফাতেমা খানম (৩৫) নামের মানব পাচারকারী দলের সদস্য এক নারীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। সে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মুফতিরগাঁও গ্রামের বাসিন্দা যুক্তরাজ্য প্রবাসী মজম্মিল আলীর স্ত্রী। শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) রাতে নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ফাতেমা বেগম ও তার স্বামী মজম্মিল আলী (৪৫)’কে অভিযুক্ত করে একই ইউনিয়নের জানাইয়া গ্রামের আশিক আলীর স্ত্রী মনোয়ারা বেগম বিশ্বনাথ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলা সদরের একটি স্কুলে সন্তানদের নিয়ে যাওয়া-আসার পথে মনোয়ারার সঙ্গে অভিযুক্ত ফাতেমা খানমের পরিচয় হয়। পরিচয়ের এক পর্যায়ে ফাতেমা জানান তার স্বামী যুক্তরাজ্য প্রবাসী। এজন্য ফাতেমা মনোয়ারার দুটি শিশুকে তার নিজের সন্তান সনাক্ত করে যুক্তরাজ্যে নিয়ে যেতে পারবেন। এতে মনোয়ারা ফাতেমার সঙ্গে তার এক ছেলে ও এক মেয়েকে যুক্তরাজ্যে পাঠানোর জন্য রাজি হন। এবিষয়ে অভিযুক্ত ফাতেমার সঙ্গে মনোয়ারার বাড়িতে বিস্তারিত আলাপ-আলোচনা হয়। সেই সুবাধে মনোয়ারার এবং ফাতেমার পরিবারের মধ্যে আত্মীয়ের সর্ম্পক গড়ে উঠায় মনোয়ারা বেগম ফাতেমার দুটি বাচ্চা যুক্তরাজ্য নেয়ার জন্য ১৬ লাখ টাকায় চুক্তি করেন।

গত ২০ আগস্ট মনোয়ারা সাক্ষীগণের উপস্থিতিতে ৩ লাখ টাকা এবং গত ৭ অক্টোবর ১০ লাখ টাকা অভিযুক্ত ফাতেমাকে প্রদান করেন। এরপর অভিযুক্ত নারীর স্বামী মজম্মিল আলী মনোয়ারার ছেলে-মেয়েকে না নিয়ে তাদের নিজের মেয়েদের নিয়ে যুক্তরাজ্যে চলে যায়। পরে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে আপোষ-মিমাংসার করার চেষ্টা করলে তা ব্যর্থ হয়। অভিযুক্তরা প্রতারণামূলকভাবে বাদীর টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

ঘটনায় বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামীম মুসা সত্যতা স্বীকার করেন।

আরও