লন্ডন ব্রিজে ছুরিকাঘাতে কয়েকজন আহত,

পুলিশ বলছে ‘সন্ত্রাসী ঘটনা’

লন্ডন ব্রিজে ছুরি হামলায় কমপক্ষে একজন নিহত হয়েছে। স্থানীয় সময় বিকেল ২টার দিকে ছুরি নিয়ে এক ব্যক্তি এ হামলা চালায়। এতে সেখানে এক ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হয়। এ সময়ে বেশ কয়েকজনকে ছুরিকাঘাত করা হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ একজনকে গুলি করেছে। পরে তারা নিশ্চিত করে সেই হামলাকারী এবং সে মারা গেছে। পুলিশ একে সন্ত্রাসী হামলা নিশ্চিত করেছে। হামলাকারী ভুয়া বিস্ফোরকজাতীয় ডিভাইস পরা ছিল।

হামলার পর পরই ওই এলাকা ঘেরাও করে রেখেছে পুলিশ। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি ও স্কাই নিউজ। এর আগে বিবিসির সাংবাদিক জন ম্যাকমানুশ বলেন, তিনি ওই ব্রিজে কিছু মানুষের জটলা দেখতে পান। কয়েকজন মিলে সেখানে একজনের ওপর হামলা করছিল। দ্রুততার সঙ্গে সেখানে পুলিশ উপস্থিত হয়। তারা গুলি করে। এতে একজন আহত হয়। মেট্রোপলিটন পুলিশ বলছে, কি নিয়ে এমন ঘটনা তা স্পষ্ট নয়। তবে প্রাথমিকভাবে পূর্ব সতর্কতা হিসেবে একে সন্ত্রাসী সংশ্লিষ্ট বলে মনে করছে পুলিশ। এর আগেই একজনকে আটক করার কথা জানিয়েছে পুলিশ। লন্ডন এম্বুলেন্স সার্ভিস একে একটি ‘মেজর ইনসিডেন্ট’ হিসেবে ঘোষণা করেছে। বৃটিশ ট্রান্সপোর্ট পুলিশ বলেছে, লন্ডন ব্রিজ স্টেশন বন্ধ রাখা হয়েছে। ফলে সেখানে কোনো ট্রেন থামবে না। স্থানীয় লোকজনকে পুলিশের পরামর্শ মতো চলাচল করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে আপডেট জানানো হচ্ছে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে। তিনি টুইটে এ তথ্য জানিয়েছেন এবং পুলিশ ও সব জরুরি সেবামূলক বিষয়ে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। ঘটনা সম্পর্কে খুব বেশি অবহিত বলে টুইট করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল। লন্ডন ব্রিজের এ ঘটনাকে হতাশাজনক বলে অভিহিত করেছেন বিরোধী লেবার নেতা জেরেমি করবিন। যারা হামলার শিকার হয়েছেন তাদের প্রতি সহানুভূতি জানিয়েছেন তিনি। সাংবাদিক ম্যাকমানুশ বলেছেন, মাত্র কয়েক মিনিট আগে তিনি লন্ডন ব্রিজ অতিক্রম করছিলেন। এ সময় ব্রিজের অন্যপাড়ে কিছু মানুষকে লড়াইয়ে লিপ্ত দেখতে পান। সেখানে কয়েকজন মানুষকে দেখতে পান একজনের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এ ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ হয়ে পড়েছে। তাতে দেখা যায়, পুলিশ কর্মকর্তারা একটি সাদা লরি লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ছে।

আরও