বঙ্গবন্ধু বিপিএল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আসছেন সালমান খান, ক্যাটরিনা

বিশেষ আয়োজন, তাই থাকছে বিশেষ কিছু। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সময় দেখতে দেখতে চলে আসছে। আগামী ৮ ডিসেম্বর রোববার বর্ণাঢ্য এক অনুষ্ঠানের ভেতর দিয়ে উদ্বোধন হবে এবারের বিপিএলের। আর সেই অনুষ্ঠানের পারফরমারদের নিয়ে এরই মধ্যে তৈরি হয়েছে আগ্রহ।

আগেই জানা গিয়েছিল, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পারফর্ম করবেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান, ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে আসছেন সংগীতশিল্পী কৈলাস খের ও সনু নিগম। ভারতীয়দের সঙ্গে থাকবেন দেশের জনপ্রিয় দুই শিল্পী জেমস ও মমতাজ। ওই সন্ধ্যায় নাচে-গানে মাতাবেন শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের মঞ্চ।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে বিপিএলের গত আসর ছিল অনাড়ম্বর। ছিল না কোনো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এবার জমকালো ও ব্যয়বহুল আয়োজন করতে যাচ্ছে বিসিবি। উদ্বোধনী কনসার্টের পৃষ্ঠপোষকতা করবে বসুন্ধরা গ্রুপ।

বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল গণমাধ্যমকে বলেন, ‘তৃতীয় পক্ষ ছাড়াই বিসিবি সরাসরি ভারতীয় শিল্পীদের চুক্তিবদ্ধ করেছে। বাংলাদেশ সরকার ও বিসিবির সঙ্গে সুসম্পর্ক থেকেই আসছেন তারা। তাদের কত টাকা দিতে হবে, সেটি বলাটা ঠিক হবে না। কেননা, সম্পর্কের খাতিরে তারা কিছুটা ছাড় দিয়েই আসবেন বিপিএলে পারফর্ম করতে।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিপিএলের উদ্বোধনী ঘোষণার পর খেলা মাঠে গড়াবে ১১ ডিসেম্বর থেকে।

মাঠের পূর্ব গ্যালারির সামনে চলছে মঞ্চ তৈরির কাজ। উল্টোদিকের প্রেসিডেন্ট বক্সের সামনে বানানো হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য আলাদা মঞ্চ। গ্যালারির ভাঙা চেয়ার সরিয়ে বসানো হচ্ছে নতুন চেয়ার। বিপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে জাঁকাল উদ্বোধনী হতে যাচ্ছে এবার। বিসিবির এ আনন্দ আয়োজন যদিও খুব কম দর্শকই মাঠে বসে উপভোগ করতে পারবেন।

স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণক্ষমতা ২৬ হাজার হলেও মঞ্চের পেছনে, ডান ও বাঁ-দিকের গ্যালারি কনসার্টের জন্য বরাদ্দ রাখছে না বিসিবি। সস্মুখের গ্র্যান্ডস্ট্যান্ড, ভিআইপি গ্যালারি, শহীদ জুয়েল স্ট্যান্ড ও শহীদ মুস্তাক স্ট্যান্ডে বসতে পারবেন দর্শকরা। মঞ্চের সামনে বসানো হবে হাজার খানেক চেয়ার। সব মিলিয়ে আট হাজার দর্শকের জন্য করা হচ্ছে আয়োজন। যার মধ্যে অন্তত তিন হাজার সৌজন্য টিকিট চলে যাবে বিসিবি কাউন্সিলর, ক্লাব অফিশিয়াল ও সরকারি কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের ব্যক্তিদের কাছে। সাধারণ দর্শকদের জন্য তাতে বরাদ্দ থাকছে মাত্র পাঁচ হাজার টিকিট।

টিকিটের সর্বনিম্ন মূল্য ধরা হয়েছে এক হাজার টাকা, সর্বোচ্চ দশ হাজার। টিকিট পাওয়া যাবে শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম, শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়াম, ওয়েস্টিন হোটেল, বনানীর ফাহিম মিউজিক ও গুলশানের ক্যাফে ইডেনে। এ ছাড়া সহজ ডটকমে পাওয়া যাবে টিকিট।

আরও