র‌্যাবের পোশাকে অপহরণ-টাকা লুট, অত:পর গ্রেফতার

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর শনির আখড়া ফুটওভার ব্রিজের নিচে র‌্যাব পরিচয়ে বাস থেকে এক ব্যক্তিকে নামিয়ে সর্বস্ব লুট করে পালিয়ে যাওয়া সেই চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।
বৃহস্পতিবার পিবিআইয়ের বিশেষ পুলিশ সুপার বশির আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন মো. আশিক পারভেজ (২৪) ও মো. মেহেদী হাসান (২৫)।
মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আলামিন শেখ বলেন, ‘গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে নেওয়া হয়েছে। তাদের রিমান্ড আবেদন করা হবে।’
শনিবার বেলা ১১টায় ‘অনাবিল’ পরিবহনের একটি বাস যাত্রাবাড়ীর শনির আখড়া ফুটওভার ব্রিজের নিচে আসলে র‌্যাবের জ্যাকেটপরা পাঁচ-ছয়জন গাড়িতে ওঠেন। তারা নিজেদের র‌্যাব পরিচয় দিয়ে মাহমুদুল হাসান নামে এক যুবককে জোর করে বাস থেকে নামান। মাহমুদুল রাজধানীর খিলক্ষেত থেকে বাসে যাত্রাবাড়ী যাচ্ছিলেন।
পরে মাহমুদুলের কাছে থাকা মোবাইল এবং তিন লাখ টাকার একটি ব্যাগ ছিনিয়ে নেন র‌্যাব পরিচয়ধারীরা। এরপর তাকে জোর করে পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা একটি প্রাইভেটকারে তোলেন তারা। প্রাইভেটকারে ওঠা পর্যন্ত মাহমদুল বারবার বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করছিলেন। বাসের অন্য যাত্রী এবং পথচারীরা সবাই ঘটনাটি শুধুমাত্র দেখছিলেন, কেউ এগিয়ে আসেনি।
মাহমুদুলকে প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে যখন তারা রওনা হচ্ছিলেন, তখন পাশে মোটরসাইকেল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা একজন উবারচালক এসে দাঁড়িয়ে যান সামনে। র‌্যাবের পোশাকপরা ওই ব্যক্তিদের পরিচয় জানতে চান তিনি। এ সময় ঘটনাস্থলের পাশেই দায়িত্বে ছিলেন ট্র্যাফিক পুলিশের কনস্টেবল মো. মকবুল। গাড়ির ভেতরের চিৎকার শুনে দ্রুত তিনিও এগিয়ে আসেন। আর তখনি র‌্যাবের জ্যাকেটপরা ওই দলটির সদস্যরা গাড়ি থেকে বের হয়ে পালিয়ে যান। চালক ও প্রাইভেটকারটি ফেলে রেখেই পালান তারা।
এরপর ট্র্যাফিক পুলিশের সহায়তায় যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ প্রাইভেটকারটি জব্দ করে মাহমুদুল হাসানকে উদ্ধার করেন। তবে তার তিন লাখ টাকা নিয়ে গেছে ওই দলটির সদস্যরা।

আরও