ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে পুলিশ সদস্যের আত্মহত্যা

রাজধানীর মিরপুরে নিজ পিস্তলের গুলিতে আত্মহত্যা করেছেন এক পুলিশ সদস্য। তার নাম আবদুল কুদ্দুস। তিনি পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্টে কর্মরত ছিলেন। আত্মহত্যার আগে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সেখানে জানিয়েছেন পারিবারিক অশান্তির কারণেই তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন।
কাফরুল থানার ডিউটি অফিসার শহীদুজ্জামান বলেন, বৃহস্পতিবার ভোরে আবদুল কুদ্দুস পিস্তল দিয়ে পেটে গুলি করে আত্মহত্যা করেন। ঘটনাস্থলে আমাদের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা গেছেন। এর চেয়ে বেশি কিছু আমার জানা নেই।
পুলিশ কর্মকর্তা জানান, আত্মহত্যাকারী পুলিশ সদস্যের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
জানা গেছে, আবদুল কুদ্দুস পারিবারিক সমস্যায় ভুগছিলেন। মৃত্যুর আগে তিনি ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কাউকে দায়ী করব না। আমার ভেতনের যন্ত্রণাগুলো বড় হয়ে গেছে, আমি আর সহ্য করতে পারছি না। প্রাণটা পালাই পালাই করছে…।
তবে অবিবাহিতগণের প্রতি আমার আকুল আবেদন, আপনারা পাত্রী পছন্দ করার আগে পাত্রীর মা ভালো কী না তা আগে খবর নেবেন। কারণ পাত্রীর মা ভালো না হলে পাত্রী কখনোই ভালো হবে না। ফলে আপনার সংসারটা হবে দোজখের মত। সুতরাং সকল সম্মানিত অভিভাবকগণের প্রতি আমার শেষ অনুরোধ, বিষয়টি বিশেষভাবে গুরুত্ব দিবেন। আল্লাহ হাফেজ।
ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ
উত্তর বিভাগ (এসটিএফ)
মিরপুর ১৪ ঢাকা।

আত্মহত্যাকারী পুলিশ সদস্যের ফেসবুক স্ট্যাটাসের ব্যাপারে ঢাকা মহানগর পুলিশের জনসংযোগ ও গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত উপকমিশনার মো. শাহাদৎ হোসেন বলেন, ‘এ ব্যাপারে জানা জানা নেই। আমি খোঁজখবর নিচ্ছি।’

আরও