স্মরণকালের বৃহত্তম মার্কিন বিরোধী বিক্ষোভে নেমেছেন ইরাকিরা

ইরাকের বাগদাদে মার্কিনিদের ড্রোন হামলায় ইরানের সর্বোচ্চ সামরিক কর্মকর্তা জেনারেল কাসেম সোলাইমানির নিহতের জেরে মধ্যপ্রাচ্যে এখন চরম অস্থিতিশীলতা বিরাজ করছে। মার্কিন সেনাদের মধ্যপ্রাচ্য থেকে তাড়ানোর জন্য জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ইরান-ইরাকসহ মধ্যপ্রাচ্যের আরও কয়েকটি দেশ। এমন পরিস্থিতিতে মার্কিন বিরোধী বিক্ষোভে নেমেছেন ইরাকের জনগণ।
মিডল ইস্ট মনিটর জানিয়েছে, ইরাকের রাজধানী বাগদাদ এখন মার্কিন বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল। স্থানীয় সময় শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল থেকেই বিক্ষোভে জড়ো হচ্ছেন ইরাকের জনগণ। বাগদাদের অধিবাসী ছাড়াও ইরাকের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে শিয়া, সুন্নি, কুর্দি ও আরব গোত্রগুলো এই মহাবিক্ষোভে যোগ দিচ্ছেন।
জানা গেছে, গত কয়েক দশকের মধ্যে এত বড় মার্কিন বিরোধী বিক্ষোভ ইরাকে আর দেখা যায়নি। বিক্ষোভকারীদের বেশিরভাগের হাতেই রয়েছে ইরাকের জাতীয় পতাকা। আর তাতে লেখা ‘আল্লাহু আকবর’। এছাড়া বড় বড় ব্যানারে লেখা রয়েছে মার্কিন বিরোধী স্লোগান।
‘আমেরিকা ধ্বংস হোক’, ‘ইসরায়েল ধ্বংস হোক’, ‘মার্কিন সেনারা ইরাক থেকে এখনই বের হও’ এসব স্লোগান দিচ্ছেন বিক্ষোভে যোগ দেওয়া লোকজন।
অনেকেই ইরাকের আজকের এই মহাবিক্ষোভকে দেশটিতে ১৯২০ সালে অনুষ্ঠিত ইসলামী বিপ্লব বা গণ-অভ্যুত্থানের সঙ্গে তুলনা করছেন।

আরও