হঠাৎ টানা ৪০ দিন যুদ্ধ করার মতো অস্ত্র মজুত শুরু করছে ভারত

টানা ৪০ দিন যুদ্ধ করার মতো অস্ত্রভাণ্ডারকে সাজিয়ে তোলার কাজ শুরু করে দিল ভারত। পুরোদস্তুর যুদ্ধ লাগলে প্রাথমিক ভাবে ১০ দিন যুদ্ধ করার মতো রসদ দিয়ে অস্ত্রভাণ্ডারকে সাজিয়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছে দেশটি। ২০২২-২৩ সালের মধ্যেই সেই লক্ষ্যে পৌঁছতে চাইছে ভারত।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক সূত্রের বরাত দিয়ে খবরটি প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম আনন্দ বাজার।

সূত্রটি জানিয়েছে, যে সব অস্ত্রের বিশাল ঘাটতি ছিল তা ইতোমধ্যেই পূরণ করা হয়েছে। টানা ৪০ দিন যুদ্ধ করার মতো গোলা-বারুদ মজুত করার লক্ষ্যে ভারত ধীরে ধীরে অগ্রসর হচ্ছে।

ওই সূত্র আরও জানায়, এখনই কোনও যুদ্ধ লাগলে তা সামাল দেওয়ার মতো অবস্থায় ভারত নেই, এটা ভাবলে ভুল হবে। চীন এবং পাকিস্তানের কথা মাথায় রেখেই অস্ত্রভাণ্ডারকে আরও সমৃদ্ধ করা হচ্ছে। ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে খবর, দেশের বেসরকারি প্রতিরক্ষা সংস্থাগুলোকে আট ধরনের ট্যাঙ্কসহ বেশ কিছু অস্ত্রশস্ত্র বানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিদেশি সংস্থার সঙ্গে যৌথ ভাবে এই অস্ত্র তৈরি করবে তারা। অস্ত্রের গুণগত মান এবং কর্মক্ষমতা বাড়াতে দেশের ৪১টি অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরির সঙ্গেও কাজ শুরু করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

২০১৭ সালে সেনাবাহিনীর অস্ত্রভাণ্ডার সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল (সিএজি)। সেই রিপোর্টে বলা হয়, সেনাবাহিনীর অস্ত্রভাণ্ডারে যে ১৫২ ধরনের গোলা-বারুদ মজুত রয়েছে তার মধ্যে ৬১ ধরনের অস্ত্রের পরিমাণ বেশ কম। তা দিয়ে টানা ১০ দশ দিন যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। এই রিপোর্ট প্রকাশিত হওয়ার পরই শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। তাই আর দেরি না করে অস্ত্র ঘাটতি পূরণের কাজ শুরু কর দিয়েছে ভারত।

আরও