কঙ্গোর গায়কের কনসার্টকে কেন্দ্র করে অগ্নিগর্ভ প্যারিস

 কঙ্গোর এক গায়কের কনসার্টকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। একাধিক জায়গায় বড় ধরনের অগ্নিসংযোগ করেছে বিক্ষোভকারীরা। অগ্নিকাণ্ডের জের ধরে প্যারিসের গ্যারে ডি লিয়ন রেলওয়ে স্টেশন খালি করার নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে কনসার্টবিরোধীরা একাধিক জায়গায় অগ্নিসংযোগ করে বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম খবরে জানানো হয়।

বছরে ৯০ মিলিয়নের মতো যাত্রীর যাতায়াত রয়েছে গ্যারে ডি লিয়ন স্টেশনে। শুক্রবার বিক্ষোভের পর সেখানকার যাত্রী ও অবকাশযাপনকারীদের স্থান ত্যাগ করতে নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় প্যারিসের ট্রেন চলাচল বিঘ্ন রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শহরটিতে দাঙ্গা পুলিশকে তলব করা হয়েছে।

মূলত রিপাবলিকান কঙ্গোর জনপ্রিয় গায়ক ফালি ইপুপার প্যারিসে একটি কনসার্টকে কেন্দ্র করে এ বিক্ষোভের সূত্রপাত। ৪২ বছরের এই গায়ক কঙ্গোর প্রেসিডেন্ট ফেলিক্স টিশিলোবোর একজন সমর্থক। প্যারিসের বিরাট এক গোষ্ঠী তার কড়া বিরোধী।

কনসার্ট ঠেকাতে দিনের শুরু থেকেই প্রতিবাদ করতে থাকেন বিক্ষোভকারীরা। তারা মোটরসাইকেল, স্কুটারসহ বিভিন্ন জায়গায় অগ্নিসংযোগ করে। সন্ধ্যার পরে বিক্ষোভ ব্যাপক আকার ধারণ করে। একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ব্যস্ততম রেলওয়ে স্টেশনটির আশপাশ কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে গেছে।

অন্য একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, দমকল বাহিনীর সদস্যদের সরিয়ে দিচ্ছে বিক্ষোভকারীরা। প্যারিসের পুলিশের শেয়ার করা একটি ফুটেজে দেখা যায়, বিক্ষোভকারীরা পথে ব্যারিকেড দিচ্ছে।

কঙ্গো সরকারের অত্যাচারে ফ্রান্সে পালিয়ে এসেছেন বিক্ষোভকারী উইলি ডেনদেবে। তিনি বলেন, সংগীত দিয়ে তারা (কঙ্গো সরকার) সব লোকদের তাদের দিকে নিয়ে নিচ্ছে, যখন তারা শত শত নারী ও শিশুদের হত্যা করছে, ধর্ষণ করছে।

তিনি আরও বলেন, আমি এখানে (ফ্রান্স) ৩০ বছর ধরে আছি। এর কারণ হলো তারা (কঙ্গো সরকার)। অথচ তাদেরকে আমরা এখানে নিয়ে এসেছি (কনসার্ট করার জন্য), মনে হচ্ছে যেন কিছু হয়নি। এবং এই কারণেই আমি ক্ষুব্ধ।

আরও