করোনাভাইরাস: জাপানে জরুরি অবস্থা জারি

 করোনাভাইরাস সংক্রমণের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়তে থাকায় উত্তরাঞ্চলীয় হোক্কাইদো দ্বীপে জরুরি অবস্থা জারি করেছে জাপান। দেশটির কর্তৃপক্ষ জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে ওই অঞ্চলের মানুষকে ঘর থেকে বের না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। শুক্রবারের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় হোক্কাইদোর গভর্নর নাওমিচি বলেন, এই ভাইরাস মোকাবিলায় সম্ভাব্য সবকিছুই করছে হোক্কাইদো কিন্তু সংকট দিন দিন বাড়ছেই। তিনি জানান, প্রতিদিন ৩ হাজার ৮০০ মানুষের করোনা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা থাকলেও গত ১ থেকে ২৩ ফেব্রুয়ারি মাত্র ৫ হাজার ৩০০ জনের শরীরে করোনা পরীক্ষা করা হয়।

জাপানে এখন পর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু ছাড়াও ১৮৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। হোক্কাইদোতে জাপান কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ঘোষিত এই জরুরি অবস্থা জারি থাকবে আগামী ১৯ মার্চ পর্যন্ত। এদিকে প্রতিবেশী দক্ষিণ কোরিয়ার তুলনায় করোনাভাইরাস মোকাবিলায় কিছুটা নির্ভার থাকার কারণে প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে সমালোচিত হচ্ছেন।

জাপান উন্নত দেশ হলেও তাদের কোনো রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র নেই। তাই একদল বিশেষজ্ঞের পরামর্শে ভাইরাস প্রতিরোধ ও মহামারি নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি দেখভাল করছেন দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আমলারা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে শিনজো আবে দেশজুড়ে স্কুল এক মাসের জন্য ছুটি ঘোষণা করেছেন।

বিশ্বব্যাপী ৫৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে চীনে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৭৮৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। চীনের বাইরে অন্যান্য দেশের মধ্যে ইরানে সর্বোচ্চ ৩৪ এবং ইতালিতে ১৭ নিয়ে এই সংখ্যা ৭৯ জন। এছাড়া বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৮৩ হাজার ৭৩২ জন। দক্ষিণ কোরিয়ায় সর্বোচ্চ ২ হাজার ৩৩৭ জন।

 

আরও