কাজলের জীবনের সেরা নারী তারা

কাজলের অভিনয়ে একসময় মুগ্ধ হয়েছে পুরো বলিউড। এখনো সিনেমাপ্রমীদের কাছে স্বপ্নের মানুষ নায়িকা কাজল। পাঁচবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। ৮ মার্চ নারী দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নায়িকা। এই দিনে তার জীবনের সেরা নারীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি।

কাজল এবার একটু ভীন্নভাবেই জানালেন নারী দিবসের শুভেচ্ছ। অনেকগুলো ছবি দিয়ে একট কোলাজ ভিডিও তৈরি করেছেন তিনি। আর সেইসব ছবিতে দেখা যাচ্ছে তার জীবনের প্রিয় নারীদের মুখ।

কোনো ছবিতে কাজলকে দেখা যাচ্ছে মায়ের সঙ্গে, কোনটাতে বোনের সঙ্গে, কোনওটাতে আবার নিজের মেয়ের সঙ্গে ৷

ভিডিওটি পোস্ট করে কাজল লিখেছেন, এরাই হল আমার জীবনের নারী ৷ তাদের মধ্যে দিয়ে আমার বেড়ে ওঠা। আমাকে জীবনের শিক্ষা পেয়েছি তাদের কাছে ৷ নারীত্ব কি, এদের থেকেই শিখেছি ৷ তাই সবাইকেই জানাই নারী দিবসের শুভেচ্ছা।

কাজলের পুরো পরিবার চলচ্চিত্রের সঙ্গে সম্পৃক্ত। তার বাবা সোমু মুখার্জি ছিলেন একাধারে প্রযোজক, গল্পকার ও পরিচালক। অন্যদিকে, মা তানুজা হিন্দি ছবির একসময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ছিলেন। ১৬ বছর বয়সে কাজল অভিনয় করেন বেখুদি সিনেমায়। এরপর শাহরুখের সঙ্গে বাজিগর সিনেমায় বাজিমাত করেন তিনি।

এরপর গুপ্ত, পেয়ার কিয়া তো ডারনা কেয়া, পেয়ার তো হোনাহি থা, দুশমন, কুছ কুছ হোতা হ্যায়, হাম আপকে দিলমে রেহেতে হে, কাভি খুশি কাভি গাম-এর মতো একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন কাজল।

১৯৯৯ সালে অভিনেতা অজয় দেবগনের সঙ্গে বিয়ে হয় কাজলের। বিয়ের পরেও ২০০৬ সালে আমির খানের সঙ্গে ফানা, ২০১০ সালে শাহরুখ খানের সঙ্গে মাই নেম ইজ খান তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। সংসার জীবেনেও সফল কাজল। স্বামী অজয় দেবগন, মেয়ে নাইসা আর ছেলে যুগকে নিয়ে বেশ ভালো আছেন তিনি। নারী দিবসে মেয়ের কথা বলতে ভোলেননি তিনি।

 

আরও