সর্বশেষ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি দীর্ঘ হচ্ছে

 ৩১ মার্চ পর্যন্ত সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে আগেই। তবে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ানোর কথা ভাবছে সরকার। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আজ বৈঠকে বসছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। সেখান থেকে ঈদুল ফিতরের পর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না খোলার সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মো. আকরাম আল হোসেন বলেন, সরকার আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। এ ছুটির আওতায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও পড়বে। তবে ৪ এপ্রিলের পর কী হবে, সে ব্যাপারে করণীয় ঠিক করতে আজ (মঙ্গলবার) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এরপর যা সিদ্ধান্ত আসে তা বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, আমাদের আগে চিন্তা ছিল চলতি সপ্তাহের শেষ দিকে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে নতুন সিদ্ধান্ত নেয়ার। যেহেতু ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি অফিসে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে, তাই আমরা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক করে সম্মিলিতভাবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব। মঙ্গলবারই এ ব্যাপারে জানিয়ে দেয়া হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বর্ষপঞ্জি অনুসারে, রমজান, ঈদুল ফিতরসহ বেশকিছু ছুটি মিলিয়ে ২৫ এপ্রিল থেকে ৩০ মে পর্যন্ত ছুটি রয়েছে। এছাড়া এপ্রিলে শবেবরাত, স্টার সানডে ও পহেলা বৈশাখের ছুটি রয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটি ও সরকারি ছুটি বাদে ৪ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত মাত্র ১৪ দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রয়েছে। তাই করোনাভাইরাস রোধে এই ১৪ দিনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে চায় উভয় মন্ত্রণালয়। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির উন্নয়ন হলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ঈদুল ফিতরের আগে আর খুলছে না বলে জানা যায়।

এদিকে দীর্ঘ সময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি থাকতে পারেএমন ধারণা থেকে এরই মধ্যে টেলিভিশনের মাধ্যমে অভিজ্ঞ শিক্ষকদের দ্বারা ক্লাস সম্প্রচারের উদ্যোগ নিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। কিছু বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে শিক্ষাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। অনেক স্কুল থেকে অভিভাবকদের ফোন দিয়ে অর্ধবার্ষিক পরীক্ষা পর্যন্ত সিলেবাস সম্পন্ন করতে বলা হয়েছে। এমনকি স্কুল খুললেই পরীক্ষায় বসতে হবে বলে জানিয়েছে এসব প্রতিষ্ঠান।

 

আরও