ইতলিফেরত বোনের বাড়ি থেকে ফিরে জ্বর-কাশি, বাড়ি লকডাউন

 নরসিংদীর পলাশে করোনাভাইরাস সন্দেহে একটি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। একই সঙ্গে পাশের বাড়ির লোকজনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বাঁশ দিয়ে ওই বাড়ির আশপাশ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বাড়ির সামনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বুধবার (১ এপ্রিল) দুপুরে ঘোড়াশাল পৌর এলাকার ৭ ওয়ার্ডের পিরিন্দার টেক গ্রামের ওই বাড়িটিকে লকডাউন করা হয়।

পলাশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারহানা আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পিরিন্দার টেক গ্রামের ওই বাড়িতে ৪০ বছর বয়সী এক ব্যক্তির জ্বর, কাশি, ঠান্ডা, গলা ব্যথা ও পাতলা পায়খানাসহ করোনার উপসর্গ দেখা দেয়ার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক বাড়িটি লকডাউন করা হয়। একই সঙ্গে ওই বাড়ি ঘেঁষা আরও একটি বাড়ির লোকজনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এছাড়া ওই বাড়ির আশপাশে জনসাধারণের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

ইউএনও আরও জানান, সন্দেহজনক ওই ব্যক্তি গত কয়েকদিন আগে নরসিংদী শহরে ইতালিফেরত তার এক বোনের বাড়ি বেড়াতে যান। ধারণা করা হচ্ছে সেখানে বোনের সংস্পর্শে আসায় তিনি আক্রান্ত হতে পারেন। ওই ব্যক্তি দুই শিশু কন্যা ও স্ত্রী নিয়ে পিরিন্দার টেক গ্রামে বসবাস করেন। তার নমুনা সংগ্রহের জন্য আইইডিসিআরে এ খবর পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে টিম এসে পরীক্ষা করার পর করোনাভাইরাস আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এদিকে ঘোড়াশাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল আলম জানান, লকডাউনের পর ওই বাড়ির পাশে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কেউ যেন ওই বাড়ির আশপাশে যেতে না পারে সে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এছাড়াও লকডাউন হওয়া বাড়িতে পুলিশ খাদ্যসামগ্রী সরবরাহ করবে।

 

আরও