২৪ ঘণ্টায় কোনো ফ্লাইট আসেনি তিন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে

 রাজধানীর হযরত শাহজালালসহ দেশের তিনটি (চট্টগাম ও সিলেট) আন্তজার্তিক বিমানবন্দর দিয়ে বিশ্বের কোনো দেশ থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় একটিও ফ্লাইট আসেনি। ফলে বিমানবন্দর তিনটি ছিল যাত্রীশূন্য। তবে স্থল ও বিমানবন্দর দিয়ে বিদেশ থেকে এ সময়ে ৩১৩ জন যাত্রী এসেছে।

বুধবার (১ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাভাইরাস পরিস্থিতি সম্পর্কিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে দেশি-বিদেশি যাত্রীদের অধিকাংশই আন্তজার্তিক বিমানবন্দর দিয়ে আসা যাওয়া করে থাকেন। চীনের উহান প্রদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের পর থেকে শাহজালাল আন্তজার্তিক বিমাবন্দরে আগত যাত্রীদের হেলথ স্ক্রিনিং শুরু হয়। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম ও সিলেটের আরও দুটি আন্তজার্তিক বিমানবন্দর, সকল স্থল, সমুদ্রবন্দর ও রেল স্টেশনে বিদেশফেরত যাত্রীদের স্ক্রিনিং শুরু হয়।

জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত গত তিন মাসে তিনটি আন্তজার্তিক বিমানবন্দর দিয়ে ৩ লাখ ২২ হাজার ৪২৩ জন, স্থলবন্দর দিয়ে ৩ লাখ ২৫ হাজার ৮২৯ জন, সমুদ্রবন্দর দিয়ে ১১ হাজার ২২৯ জন ও ক্যান্টনমেন্ট রেল স্টেশন দিয়ে ৭ হাজার ২৯ জন দেশি-বিদেশি যাত্রীসহ মোট ৬ লাখ ৬৬ হাজার ৫৩০ জনের হেলথ স্ক্রিনিং করা হয়।

তার মধ্যে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) তিনটি আন্তজার্তিক বিমানবন্দর দিয়ে ৮০ জন যাত্রী আসেন। কিন্তু আজ স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আন্তজার্তিক বিমানবন্দর দিয়ে কোনো যাত্রী আসেনি।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) বুধবারের তথ্য অনুযায়ী, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও তিন আক্রান্ত হয়েছেন, মারা গেছেন একজন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৪ জনে। ভাইরাসটি থেকে সুস্থ হয়েছেন আরও একজন। ফলে মোট সুস্থ হয়েছেন ২৬ জন। আর এতে মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের।

 

আরও