পাড়ায় ঢোকা বন্ধ করলেন এলাকাবাসী

 এলাকার মানুষদের নিরাপত্তার কথা ভেবে বাইরে থেকে আসা মানুষদের চলাচল সীমিত করছেন স্থানীয়রা। এজন্য নীলফামারীর শাহীপাড়ার পাঁচটি প্রবেশ মুখে বাঁশ দিয়ে আটকে দেয়া হয়েছে। সোমবার দুপুরে পাড়াটির প্রবেশের প্রধান পথ, গালর্স স্কুল, বিডি হল, সাব রেজিস্টার গলি ও কলেজ পথ এভাবেই আটকে দেয়া হয়।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে এই উদ্যোগ নিয়েছেন বসবাসরত বাসিন্দারা।

সেখানকার বাসিন্দা দেশ টিভির প্রতিনিধি আব্দুল বারী জানান, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের না হওয়ার নির্দেশনা থাকলেও প্রায় সময় এখানে ভিড় করছেন বিভিন্ন এলাকার মানুষ। এটি নিরাপত্তাহীনতার একটি বিষয়। এছাড়াও পাড়ার সড়কগুলো ব্যবহার করছেন বিভিন্ন পথে আসা যাওয়া মোটরসাইকেল আরোহীরা। এরফলে বিভিন্ন এলাকার মানুষ আসা যাওয়া করছেন এই সড়কগুলো ব্যবহার করে।

এনাজ আলী নামে আরেক বাসিন্দা বলেন, কার শরীরে কী আছে আমরা তো বুঝছি না। আসা যাওয়া ব্যক্তিদের সঙ্গে এলাকার পরিচিতজনদের সাথে কথা হচ্ছে, চলাফেরাও হচ্ছে। এরফলে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। যার কারণে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। স্থানীয়রা হেঁটে বের হয়ে জরুরি কাজ সেরে বাড়িতে ঢুকতে পারবেন।

পৌরসভার সাত নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও একই এলাকার বাসিন্দা আনিছুর রহমান আনিস বলেন, এখানে প্রায় ১২০০ মানুষ বাস করেন। সবার কথা ভেবে এটি করা হয়েছে। নিতান্তই প্রয়োজন ছাড়া কেউ আসা যাওয়া ছাড়া এমনকি মোটরসাইকেলও প্রবেশ করাতে পারবেন না।

এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে নীলফামারী থানার ওসি মোমিনুল ইসলাম মোমিন বলেন, স্থানীয়রা সচেতন হয়েছেন বলেই এটি করতে পেরেছেন। আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে পরিস্থিতি মোকাবেলায় যাতে আমরা সবাই ভালো থাকতে পারি।

 

আরও