রাত থেকেই সিল করে দেওয়া হচ্ছে এই ১৫টি জেলা

দেশ জুড়ে ইতিমধ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গিয়েছে পাঁচ হাজার। মারণ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন একশো জনের বেশি মানুষ। তারই মাঝে লখনউ, নয়ডা সহ উত্তর প্রদেশের ১৫ টি জেলাকে কার্যত সিল করা হবে, এমনটাই সিদ্ধান্ত স্থানীয় প্রশাসনের। জানা গিয়েছে, প্রয়োজনীয় সব জিনিস হোম ডেলিভারি করা হবে।

উত্তর প্রদেশে এখনও পর্যন্ত তিনশো জনের বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া মারা গিয়েছেন তিন জন। এই কারণে যাতে পরিস্থিতি আরও খারাপ না হয় তাই গুরুত্বপূর্ণ মোট ১৫ টি জেলাকে কার্যত কিছুদিনের জন্য সিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফ থেকে।

জানা গিয়েছে আজ বুধবার মধ্যরাত থেকেই কার্যকর করা হবে ওই সিদ্ধান্ত। এছাড়া ১৫ এপ্রিল ওই জেলাগুলির পরিস্থিতি প্রশাসনের তরফ থেকে প্রথমে যাচাই করা হবে বলে জানা গিয়েছে। তারপরে পরবর্তী পদক্ষেপ ঘোষণা করবেন প্রশাসন। যে ১৫ টি জেলাকে সিল করা হল তা হল নয়ডা, গাজিয়াবাদ, সাহারানপুর, মেরুট, লখনউ, আগ্রা, কানপুর,বারানসী, শাম্লি সাহারানপুর।

এছাড়াও এইদিন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিভিন্ন রজ্যর শীর্ষ নেতাদের বৈঠক হয়। মনে করা হচ্ছে বাড়ানো হতে পারে লক ডাউনের মেয়াদকাল। আর তারপরে যোগী আদিত্যনাথের সরকার এই ঘোষণা করেন সাধারণের জন্য। জানানো হয়েছে, উত্তর প্রদেশের যে যে জেলাতে বেশি আক্রান্ত রয়েছে সেখানে বিশেষ নজর দেওয়া হবে। ওই এলাকাগুলিতে কেবলমাত্র চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্য কর্মীরা ঢুকতে পারবেন। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ জিনিসের গাড়ি ঢুকতে পারবে।

তাছাড়া ওই জেলাগুলিতে কারোর ঢোকার বা সেখান থেকে বেরনোর অনুমতি নেই। রাজ্যর মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, ১৫ টি জেলাতে সংক্রমণের মাত্রা ক্রমেই বেড়েছে। তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে প্রশাসনের তরফে সাধারণ মানুষকে আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে। এছাড়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে মাস্কের ব্যবহারও। উত্তর প্রদেশের করোনা আক্রান্তদের মধ্যে বেশ কিছুজন দিল্লির নিজামুদ্দিনের জমায়েতে অংশ নিয়েছিলেন।

ইতিমধ্যে ওই জামাতে যাওয়া বেশ কয়েকজনকে চিহ্নিত করেছে। তাদের মদঝেয় বেশ কয়েকজনকে কোয়ারেন্তাইনে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া প্রশাসনের তরফে গুজবে কান না দেওয়ার কথাও জানানো হয়েছে। কোন রকম ভুয়ো খবর ছড়ানোর চেষ্টা হলে প্রশাসনের তরফে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে। তবে সাধারণের স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

 

আরও