টরন্টোয় করোনায় আরও দুই বাংলাদেশির মৃত্যু

 কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও দুই বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা হলেন বাংলাদেশি আইটি প্রকৌশলী জামাল আলী (৪৫) ও আশরাফুল ইসলাম ওমর (৪২)। এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডীয় নাগরিকের মৃত্যু হলো।

১০ এপ্রিল সন্ধ্যায় করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশি আইটি প্রকোশলী জামাল আলী (৪৫) স্থানীয় টরন্টো জেনারেল হাসপাতালে মারা যান। তিনি বেশ কিছুদিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। তাঁর আগে থেকে আরও অন্যান্য শারীরিক সমস্যা ছিল বলে পরিবারকে জানিয়েছিলেন চিকিৎসকেরা।

জামালের স্বজনেরা জানান, তাঁর বাড়ি সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলায়। ষাটের দশকে তাঁদের পরিবার কানাডায় অভিবাসী হয়ে এসেছিলেন। তাঁর দুই সন্তান ও স্ত্রী রয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১০ এপ্রিল রাতেই টরন্টোপ্রবাসী তরুণ আশরাফুল ইসলাম ওমরের স্থানীয় ইস্ট ইয়র্কের একটি হাসপাতালে মৃত্যু হয়। তাঁর পরিবার ঢাকার শান্তিবাগের আদি বাসিন্দা। তাঁর বাবা প্রয়াত শেখ জিয়াউদ্দিন। আশরাফুল মৃত্যুকালে স্ত্রী ও ১১ বছর বয়সী এক পুত্রসন্তান রেখে গেছেন।

টরন্টোয় একই সন্ধ্যায় দুই বাংলাদেশির মৃত্যুতে আতঙ্ক নেমে এসেছে বাংলাদেশি কমিউনিটির মানুষদের মধ্যে। করোনায় প্রাণ হারানো মানুষকে শেষবারের মতো কাছ থেকে দেখতে যেতে পারছেন না স্বজনেরা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাই পাওয়া যাচ্ছে স্বজন হারানো আকুতি ও তাঁদের নিয়ে সুখস্মৃতির আখ্যান।

অন্টারিওসহ কানাডার বিভিন্ন প্রদেশে বসবাসরত বাংলাদেশিদের সংখ্যা এক লাখের বেশি। নানা সূত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশির সংখ্যা ৫০এর বেশি।
এ পর্যন্ত কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২২ হাজার ১৪৮, এতে মৃত্যু হয়েছে ৫৬৯ জনের।

 

আরও