সাভারে করোনা উপসর্গ নিয়ে কিশোরের মৃত্যু

 সাভারে করোনা উপসর্গ নিয়ে ১৩ বছরের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ওই কিশোরের নমুনা সংগ্রহের পর তা আইইডিসিআর এ পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা। এ ঘটনায় পৌর এলাকায় ওই কিশোরের ভাড়া বাসাটি লকডাউন করেছে প্রশাসন।

রোববার সকালে সাভার উপজেলার ছায়াবিথী এলাকার নিজ বাড়িতে মারা যায় ওই কিশোর।

মৃত আসাদুল ইসলাম (১৩) সাভার রাজাশন এলাকার কনক হোসেনের ছেলে। তবে তারা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের রাডিবাড়ী এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন।

মৃতের বাবা কনক হোসেন জানান, গত ২-৩ মাস ধরে তার ছেলে নিউমোনিয়ায় ভুগছিল। তবে এক মাস যাবৎ তার সর্দি-কাশি ও জ্বর ছিল। ১২ দিন আগেও রাজধানীর বক্ষব্যাধি হাসপাতালে চিকিৎসক দেখিয়ে সাভারের রাজাশন এলাকার নিজ বাড়িতে আনা হয় তার ছেলেকে। কিন্তু পারিবারিক কলহের জেরে গত ৮ এপ্রিল পৌর এলাকার রাডিবাড়ীতে পরিবার নিয়ে ভাড়া বাসায় ওঠেন তিনি। এরপর আজ সকালে তার ছেলে মারা যায়।

সাভার মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএফএম সায়েদ জানান, স্বেচ্ছাসেবীদের মাধ্যমে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া কিশোরের দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। একই সঙ্গে পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের রাডিবাড়ী এলাকার বাসাটি লকডাউন করা হয়েছে।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ডা. সায়েমুল হুদা বলেন, মৃত কিশোরের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা শনাক্তের জন্য ইতোমধ্যে আইইডিসিআর্রে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। এরপর রোববার দুপুরে মৃতের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তরের পর স্বেচ্ছাসেবীদের মাধ্যমে দাফন করা হয়েছে।

 

আরও