করোনা বুঝিয়ে দিল টাকা, ক্ষমতা কিচ্ছু না

লোকে বলে, আই অ্যাম সুপ্রিম! আমার অনেক টাকা আছে! এ সব টাকা, ক্ষমতা কিচ্ছু না, বুঝিয়ে দিল এই করোনা, এই নববর্ষ।

করোনায় আক্রান্ত নববর্ষের অনুভূতি জানাতে গিয়ে এভাবেই বললেন কলকাতার নায়ক প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

কলকাতার আনন্দবাজারকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, ভাবিনি, কোনো দিন এ রকম পয়লা বৈশাখ কাটাতে হবে। শুধু বাঙালি হিসেবে নয়, সারা বিশ্ব এই করোনার ত্রাসে কেঁপে উঠছে। না দেখা, না চেনা বায়োলজিক্যাল ওয়ার। কী ভয়ানক যুদ্ধ! এই যুদ্ধে আমি আমার শত্রুকে চিনি না

তিনি আরও বলেন, দুজন আছেন এক জন ঈশ্বর, আর এক জন প্রকৃতি। তারাই পারবেন কিছু করতে। সারা বিশ্বের মানুষ এখন ঈশ্বরকে ডাকছে। অনেক সময় দিতে পারছি আমরা ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করার। আর প্রকৃতির প্রতি শ্রদ্ধা বেড়ে গিয়েছে আমাদের।

করোনা প্রাকৃতিক আহবান দাবি করে এ নায়ক বলেন, আমি কাউকে দোষ দিচ্ছি না কিন্তু। আসলে পৃথিবীটা মেকানিক্যাল হয়ে গিয়েছিল। মানুষও সে রকম ভাবে জীবন কাটাচ্ছিল। এটাই বাস্তব।

পাশের মানুষটা পাশের ঘরে থাকলে উঠে গিয়ে কথা বলি না আর। হোয়াটসঅ্যাপ করি। আর তো সেই চিঠির গন্ধ পাই না! চিঠি আসার অপেক্ষাও নেই। লকডাউনের পরবর্তী জীবন হয়তো এইগুলো থেকে আমাদের সরিয়ে আনবে।

এবারের বৈশাখ নিয়ে তিনি বলেন, আজ নতুন জামার গন্ধ নেই। আনন্দের হাসি নেই। হাসির রোল নেই আমার শহরে। পাঞ্জাবি আর শাড়িরা আজ গৃহবন্দি। আছে তো কেবল বৈশাখের হাওয়া, যা বলে যাচ্ছে পরের বৈশাখে বাঙালি নববর্ষকে বদলে যাওয়া জীবনের আলোয় আবার সাজিয়ে তুলবে।

 

আরও