মসজিদে নামাজ আদায় সীমিত করায় পাক সরকারকে হুঁশিয়ারি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের মহামারি মোকাবিলায় মসজিদে নামাজ আদায়ে সীমাবদ্ধতা আরোপ করেছে পাকিস্তান। তবে মসজিদে নামাজ আদায় সীমিত করায় সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে দেশটির অন্তত ৫০ জন আলেম।

পাকিস্তানের বেফাকুল মাদারিস আল-আরাবিয়া সংগঠনের শীর্ষ পর্যায়ের আলেমরা ইমরান খান সরকারকে মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) এই হুঁশিয়ারি দেন। তারা বলেছেন, মসজিদে নামাজ পড়ার ব্যাপারে সীমাবদ্ধতা আরোপ করা যাবে না।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় পাকিস্তান সরকার বেশকিছু পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। এর মধ্যে সামাজিক দূরত্ব পালন করতে বলেছেন দেশটির জনগণকে। আর সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে মসজিদে নামাজ আদায় সীমিত করেছে দেশটির সরকার। তবে রাওয়ালপিন্ডি এবং ইসলামাবাদের বেফাকুল মাদারিসের আলেমরা সরকারের এ নির্দেশনার বিরোধিতা করেছেন।

সংগঠনের শীর্ষ পর্যায়ের ৫৩ জন আলেম দেশটির রাজধানী ইসলামাবাদের জামিয়া দারুল উলুম জাকারিয়ায় মঙ্গলবার এ বিষয়ে বৈঠকে করেন। বৈঠকে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। বৈঠক থেকেই সরকারের এ সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করা হয়।

এ বৈঠকে শীর্ষ পর্যায়ের আলেমদের পাশাপাশি বিভিন্ন মাদরাসার শিক্ষক, নিষিদ্ধ ধর্মীয় সংগঠনের নেতা এবং রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পাকিস্তান সরকার করোনাভাইরাস মোকাবিলার অংশ হিসেবে পবিত্র রমজান মাসেও মসজিদে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে সীমাবদ্ধতা বহাল রাখার পরিকল্পনা করছেন বলে জানা গেছে। এরপরই পাকিস্তানের আলেমদের পক্ষ থেকে এই হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।

 

আরও