“সংবাদ সম্মেলনে আমার উপস্থিত থাকা পুরোপুরি অর্থহীন”: ডোনাল্ড ট্রাম্প

 

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন হোয়াইট হাউসের করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সংবাদ সম্মেলনে তাঁর উপস্থিত থাকাটা পুরোপুরি অর্থহীন। এক টুইটার বার্তায় তিনি উল্লেখ করেন, “হোয়াইট হাউসের সংবাদ সম্মেলন করার কোন অর্থই হয়না, যেখানে পক্ষপাতদুষ্ট সব গণমাধ্যমের কাজই হলো অবাঞ্ছিত সব প্রশ্ন করা এবং সত্য খবর প্রকাশ থেকে বিরত থাকা।”
তিনি আরো বলেন, “ঐরকম সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে গণমাধ্যমের প্রসার হয় ঠিকই কিন্তু বিনিময়ে আমেরিকার জনগণের মিথ্যা খবর ছাড়া আর কিছুই জোটেনা, যা সময় ও চেষ্টার অপচয় ছাড়া আর কিছুই নয়।”
উল্লেখ্য গত প্রায় একমাস যাবত নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকার পর গত শনিবার তিনি সেখানে অনুপস্থিত ছিলেন। খবরে প্রকাশ, ট্রাম্পের উপদেষ্টাগণ তাঁকে এ মর্মে সতর্ক করে দেন যে
প্রেসিডেন্টের উপস্থিতি করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত তাঁর কার্যক্রমকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে।
বিগত কয়েকসপ্তাহের সংবাদ সম্মেলনে ডোনাল্ড ট্রাম্প অনেক ভুল এবং অপ্রমাণিত তথ্য প্রদান করেন যেগুলির মধ্যে আছে সূর্যরস্মি এবং ম্যালেরিয়ার ঔষধ কোভিড-১৯ এর প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে। ট্রাম্পের এরকম ভুল তথ্য প্রদানের ফলস্বরূপ পরবর্তীতে তাঁরই অধীনস্ত চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের ঐসকল তথ্য শোধরাতে হয়।
গত শুক্রবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মাত্র বাইশ মিনিটের সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংয়ের পর উপস্থিত সবাইকে অবাক করে দিয়ে কোন প্রশ্নের উত্তর না দিয়েই সম্মেলন কক্ষ থেকে বেরিয়ে যান। ট্রাম্প ইতিপূর্বে জীবাণুনাষককে ইনজেকশন হিসেবে ব্যবহার করলে কোভিড-১৯ সেরে যেতে পারে বলে যে মারাত্মক ভুল তথ্য দিয়েছিলেন, অনেকেই সংবাদ সম্মেলনে তাঁর প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে চলে যাওয়াটাকে সে ভুলেরই নীরব স্বীকারাক্তি হিসেবে মনে করছেন।
ট্রাম্পের প্রদত্ত ঐসকল তথ্যগুলো একইসাথে বিস্ময় ও হাস্যরসের উদ্রেক করে এবং চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরাও এব্যাপারে সতর্কবাণী উচ্চারণ করেন। নিজের ভাবমূর্তি রক্ষায় মরিয়া ট্রাম্প এব্যাপারে তাঁর ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন যে, তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে অনেকটা ব্যঙ্গচ্ছলেই ঐ তথ্যগুলো প্রদান করেন, যদিও ভিডিও রেকর্ডে স্পষ্ট দেখা যায় যে তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে নয় বরং নিজের অভিমত হিসেবেই ঐ কথাগুলো বলেছিলেন।
যদিও হোয়াইট হাউসের সংবাদ সম্মেলনের মূখ্য উদ্দেশ্য হলো দেশের করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সার্বিক পরিস্তিতি সাংবাদিকদের অবহিত করা, কিন্তু বস্তুতপক্ষে প্রশ্নত্তোর পর্বটি হয়ে ওঠে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের তর্জনগর্জনের কেন্দ্রবিন্দু।
অনেকের মতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হোয়াইট হাউসের সংবাদ সম্মেলনকে একদিকে করোনা ভাইরাস দুর্যোগ মোকাবেলায় তাঁর প্রশাসনের বন্দনা এবং অপরদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং ডেমোক্রেটিক পার্টিকে সমালোচনার বস্তুতে পরিণত করেছেন।
শনিবার প্রকাশিত কয়েকটি প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ঘনিষ্ট এক উপদেষ্টা তাঁকে বিশেষ কোন ঘোষণা প্রদান ব্যতীত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত না থাকার জন্য পরামর্শ দেন। অবশ্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত না থাকার ব্যপারে অনেকটা দ্বিধাগ্রস্ত, কারণ তিনি মনে করেন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিতি তাঁর জনপ্রিয়তা বাড়ানোর ব্যাপারে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে।

 

আরও