ছয় সপ্তাহে সর্বনিম্ন প্রাণহানি স্পেনে

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তাণ্ডব চালানো প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃত্যুপরীতে পরিণত হওয়া স্পেনে কমে এসেছে এর প্রাদুর্ভাব। দেশটিতে গত ছয় সপ্তাহের মধ্যে করোনাভাইরাস সবচেয়ে কমসংখ্যক মানুষের প্রাণ কেড়েছে গত ২৪ ঘণ্টায়।

বৃহস্পতিবার স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা গত ৪২ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে এসেছে। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২৬৮ জন মারা গেছেন করোনায়।

এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪ হাজার ৫৪৩ জনে; একদিন আগে এই সংখ্যা ছিল ২৪ হাজার ২৭৫। এছাড়া করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরও এক হাজারের বেশি মানুষ; মোট ২ লাখ ১৩ হাজার ৪৩৫ জনে।

করোনার প্রাদুর্ভাব কমে আসায় দেশটিতে লকডাউন শিথিল করে খুলে দেয়া হয়েছে বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় খাত। লকডাউনের বিধি-নিষেধ শিথিলের পর স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছে স্পেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনে উৎপত্তি হওয়ার পর দেশটিতে চার হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নভেল করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে বিশ্বের দুই শতাধিক দেশে। বিধ্বংসী রূপে থাবা বসিয়েছে ইউরোপ এবং আমেরিকায়। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনায় এক লাখের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। অন্যদিকে, শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রেই মারা গেছেন ৬১ হাজারের বেশি মানুষ; যা বিশ্বে একক কোনো দেশে সর্বোচ্চ প্রাণহানি।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের নারকীয় তাণ্ডব চললেও এখন পর্যন্ত কোনো ভ্যাকসিন কিংবা প্রতিষেধক তৈরি হয়নি। তবে বিশ্বের শত শত বিজ্ঞানী করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারে অবিরাম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানী গত ২৩ এপ্রিল চ্যাডক্স১ এনকোভ-১৯ নামের একটি করোনা ভ্যাকসিন মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করেছেন। এই পরীক্ষার ফল আগামী জুন মাসের মাঝামাঝি সময়ের দিকে আসার কথা রয়েছে।

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির জন্য বর্তমানে বিশ্বের প্রায় একশ প্রকল্প চলমান। বিভিন্ন বায়োটেক কোম্পানি এবং গবেষকরা করোনার ভ্যাকসিন তৈরির কাজ করে চলছেন। এর মধ্যে প্রায় পাঁচটি ইতোমধ্যে মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগও করা হয়েছে।

 

আরও