ওয়ার্নারের চোখে বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান কে?

স্টিভেন স্মিথ এবং বিরাট কোহলি, দু’জনই নিজেদেরকে চিনিয়েছেন আলাদা করে। দুইজনই চান প্রচুর রান করতে, সেজন্যেই তারা সবার চেয়ে এগিয়ে। এমনটাই মত ডেভিড ওয়ার্নারের। স্মিথ কিংবা কোহলির মতো ব্যাটসম্যানরা দলের অন্যদের মানসিকভাবে উৎসাহ যোগায় বলেও মত তার। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টোর সঙ্গে আইপিএলে ওপেন করা নিয়েও মুখ খুলেছেন এই অজি ব্যাটসম্যান।
হালের সেরা ব্যাটসম্যান কে? স্টিভেন স্মিথ নাকি বিরাট কোহলি? এই প্রশ্নের উত্তরে দ্বিধাদ্বন্দ্বে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে সেরার আসনটা স্মিথের দখলে, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে সেরার তকমা দখলে নিয়েছেন বিরাট কোহলি। একজনকে বাছাই করা মহা মুশকিল কাজই। তাই সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান কে এই প্রশ্নের উত্তরে ডেভিড ওয়ার্নারও দিলেন গা বাঁচানো জবাব।

ওয়ার্নার বলেন, মানসিকভাবেই দু’জনেই বেশ শক্ত, রান করার ক্ষেত্রে ওদের সামর্থ্য অন্য সবার চেয়ে বেশি। দু’জনেই উইকেটে থাকতে অনেক পছন্দ করে, তবে ওদের রান সংগ্রহের স্টাইলটা ভিন্ন। স্টিভ মাঠে নিজের সময়টা উপভোগ করে, মজা করে, শুধু আউট হতে চায় না কোনভাবেই। বিরাট যখন উইকেটে থাকে তার লক্ষ্য থাকে প্রচুর রান করা।

সেরা কে বাছাই করেননি, তবে সতীর্থ স্মিথ দলের জন্য কতোটা আশীর্বাদ সেটি জানেন ওয়ার্নার। একইভাবে বিরাট কোহলিও আগলে রাখেন পুরো ভারতীয় দলকে, মত ওয়ার্নারের।

ওয়ার্নার বলেন, ওরা দলের ভিত্তি তৈরি করে, আত্মবিশ্বাস বাড়ায়। ওরা যখন রান করে অন্যদের জন্য কাজটা সহজ হয়ে যায়। স্টিভ কিংবা বিরাট যদি বাজে ভাবে আউট হয়ে যায়, অন্যরা তখন দ্বিধান্বিত হয়ে পড়ে। ওই পরিস্থিতি সামলানো খুব কঠিন।

ব্যাটসম্যানের র‌্যাংকিংয়ে ভারত-অস্ট্রেলিয়ার লড়াই চললেও, ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো আর ধ্রুপদী লড়াইটা ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার। অ্যাশেজটা যার প্রমাণ। দুই দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যেও চলে শত্রু শত্রু খেলা। সেখানে অস্ট্রেলিয়ান ডেভিড ওয়ার্নার আর ইংল্যান্ডের জনি বেয়ারস্টো গেল আইপিএলে মাঠে নেমেছেন সানরাইজার্সের জার্সিতে, এক সঙ্গে ইনিংস সূচনা করেছেন। দুজনে মিলে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের জুটির রেকর্ডসহ সংগ্রহ করেছেন ৭৯১ রান। দুজনের এমন রসায়নের গোপন রহস্য জানার আগ্রহ অনেকদিনের।

ওয়ার্নার বলেন, বিষয়টা এমন, আমরা ওদেরকে অপছন্দ করতেই বেশি পছন্দ করি। ওদের কারো সঙ্গে আমি বন্ধুত্ব করতেও চাইনা কারণ আমরা একজন আরেকজনের প্রতিপক্ষ। কিন্তু এখন চিত্রটা পুরো পাল্টে গেছে। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের কারণে বিষয়টা সহজ হয়ে গেছে। আমার কিংবা জনি দুজনের জন্যই বিষয়টা অদ্ভূত ছিল। আমরা কখনো একসঙ্গে খেলিনি, একজন আরেকজনকে খুব ভালোভাবে জানতামও না। তারপরও আমরা একজন আরেকজনের খেলা খুব ভালো বুঝতাম।
এবারের আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করার কথা ওয়ার্নারের।

আরও