ফরিদপুরে বাবা-ছেলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

ফরিদপুরে নতুন করে বাবা-ছেলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে স্থাপিত করোনা শনাক্তকরণ ল্যাব সূত্রে শনিবার (৯ মে) বিকেলে এ তথ্য জানা গেছে। এ নিয়ে ফরিদপুর জেলায় এ পর্যন্ত ২৬ জন করোনা রোগী শনাক্ত হলেন।

নতুন যে দুইজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে তারা বাবা-ছেলে। তাদের বাড়ি ফরিদপুর সদর উপজেলার কৈজুরি ইউনিয়নের একটি গ্রামে। বাবার বয়স ৫৫ ও ছেলের বয়স ২৪। বাবা ঢাকায় একটি পত্রিকার কার্যালয়ে মেশিনম্যান হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। তিনি স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ঢাকায় থাকেন। বাবা ঢাকায় অসুস্থ হয়ে পড়লে এবং তার শরীরে করোনা উপসর্গ দেখা দিলে ছেলে গত বৃহস্পতিবার (৭ মে) বাবাকে নিয়ে ফরিদপুরে আসেন। গত শুক্রবার করোনা শনাক্তকরণ পরীক্ষার জন্য দুইজনের নমুনা নেয়া হয়।

ফরিদপুরের সিভিল সার্জন মো. ছিদ্দীকুর রহমান বলেন, ফরিদপুরে শনিবার নতুন করে দুই ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হওয়ায় জেলায় এ পর্যন্ত মোট ২৬ জনের করোনা শনাক্ত হলো। এই ২৬ জনের মধ্যে ফরিদপুর সদরে সাত, নগরকান্দা ও বোয়ালমারীতে পাঁচজন করে, ভাঙ্গায় তিনজন, চরভদ্রাসন ও আলফাডাঙ্গায় দুই জন করে এবং সদরপুর ও মধুখালীতে একজন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, এর মধ্যে পাঁচজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। এর মধ্যে নগরকান্দার চারজন ও বোয়ালমারীর একজন রয়েছেন।

ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মো. আলীমুজ্জামান বলেন, ফরিদপুর সদরের কৈজুরি ইউনিয়নের করোনা আক্রান্ত বাবা-ছেলের বাড়িসহ আশপাশের কয়েকটি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

 

আরও