আমরাও চাই লিগ হোক, তবে করোনা পরিস্থিতি ভালো হওয়ার আগে নয়

স্বাস্থ্য বিধি মেনে ঈদের পর প্রিমিয়ার লিগ শুরুর আবেদন করছে। ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। আজই বিসিবি ও ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের আয়োজক-ব্যবস্থাপক সংগঠন সিসিডিএমের কাছে চিঠি দিয়ে ঈদের পর সুবিধাজনক সময়ে ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের একমাত্র আসর আবার শুরুর আহবান জানিয়েছে ক্রিকেটারদের এই সংগঠন।

সংগঠন থেকে বলা হয়েছে শতাধিক ক্রিকেটারের রুটি-রুজির একমাত্র মাধ্যম এই প্রিমিয়ার লিগ। নাহয় অনেক ক্রিকেটার চরম অর্থকষ্টে পড়বেন। এর সাথে কোচিং স্টাফ, ক্লাববয়, মাঠকর্মী এবং সর্বোপরি আম্পায়ার ও স্কোরারদেরও আর্থিক বিষয় জড়িত। তাই করোনার সর্বগ্রাসী রূপ কমে আসলে ঈদের পর লিগ শুরু করা যায় কি না? তা খুঁটিয়ে দেখার আবেদন করা হয়েছে।

কোয়াবের এই আবেদনের প্রেক্ষিতে এখন কি হবে? ঢাকার ক্লাব ক্রিকেট কি সত্যি সত্যি ঈদের পরে না হলেও মাস খানেক দেরিতে জুনের প্রথম না হয় মাঝামাঝি গিয়ে শুরু হবে? ক্রিকেট অনুরাগিদের মনে কৌতুহলি প্রশ্ন এরই মধ্যে বাসা বেঁধেছে।

আজ রোববার রাতে সিসিডিএম সভাপতি কাজী ইনাম আাহমেদ এ কৌতুহলি প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন। মুঠোফোন আলাপে বিসিবি পরিচালক ও ঢাকাই ক্লাব ক্রিকেট সংগঠনের প্রধান জানান, কোয়াবের লিগ শুরুর আবেদনের চিঠি আমরা পেয়েছি।

আমরাও নীতিগতভাবে চাই প্রিমিয়ার লিগ মাঠে গড়াক। আমি প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে এরই মধ্যে বিসিবি প্রেসিডেন্টের (নাজমুল হাসান পাপন) সাথে কথাও বলেছি। তিনিও চান ঢাকার ক্লাব ক্রিকেট হোক; কিন্তু সেটাই শেষ কথা নয়। লিগ শুরুর আগে সবার আগে খুঁটিয়ে দেখতে হবে করোনা পরিস্থিতি কেমন?

আমার দেশের করোনা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে প্রিমিয়ার লিগ কবে মাঠে গড়াবে। বর্তমান প্রেক্ষাপটে ক্রিকেট লিগ শুরু সম্ভব নয়। আর করোনা পরিস্থিতি কবে ভাল হবে, কেউ তা নিশ্চিত করে বলতেও পারবেন না। তাই এ মুহূর্তে আসলে চুড়ান্ত কথা বলার অবকাশ নেই।

সিসিডিএম চেয়ারম্যান আরও যোগ করেন, করোনা সংকট ও ভয়বহতা থামার আগে লিগ শুরুর প্রশ্নই আসে না। তিনি বোঝানোর চেষ্টা করেন, বিসিবি চাইলেই লিগ শুরু সম্ভব নয়।

তাই মুখে এমন কথা, সরকার, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশ আমাদের অনুস্মরণ করতে হবে। সবার আগে খুঁটিয়ে দেখতে হবে কানেক্টেড অথরিটি কি বলে? আমাদের অথোরিটি কখন খেলার অনুমতি দেয়, সেটা দেখতে হবে। আমাদের প্রেক্ষাপট কেমন দাঁড়ায়, তাও বিবেচনায় আনতে হবে। তারপর দেখতে হবে আমরা প্রেক্ষাপট বিবেচনায় কখন কিভাবে লিগ চালু করতে পারবো।

সিসিডিএম চেয়ারম্যান আরো বলেন, তারও পাশাপাশি দেখতে হবে আইসিসির স্বাস্থ্য নির্দেশিকা কি? আইসিসির টেস্ট খেলুড়েসহ সব দেশে একটা স্বাস্থ্য নির্দেশিকা এবং ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক খেলা আয়োজনের ওপর অতি অবশ্যই একটি নির্দেশিকা দেবে। সেটাও বিবেচনায় আনতে হবে। কোন দেশ কিভাবে খেলা শুরু করেঝে, তারা কেমন স্বাস্থ্য সচেতনতার পরিচয় দিচ্ছে। কেমন স্বাস্থ্যবিধি মেনে খেলা শুরুর পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে, সেগুলোও দেখতে হবে। সেখান থেকে আমরা শিখতে পারবো, আসলে কিভাবে খেলা আয়োজন করা যায়। তবে প্রথম ও শেষ কথা হলো, আমরাও চাাই ক্লাবগুলোও চায় লিগ হোক। তবে পরিবেশ ভাল ও অনুকুল হলেই কেবল লিগ শুরু হবে।

 

আরও