বরিশালে সেবিকা পরিবারের চারজনসহ করোনা শনাক্ত ৫

বরিশালে সেবিকার পরিবারের চারজনসহ গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৫ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তারা হলেন, বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কর্মরত জ্যেষ্ঠ এক সেবিকার ৫ বছরের ছেলে, তিন বছরের মেয়ে, ৬০ বছরের শ্বশুর, ৫০ বছর বয়স্ক শাশুড়ি এবং নগরীর ৩২ বছরের এক বাসিন্দার।

মেডিক্যাল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের আরটি-পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এর আগে গত সোমবার ৪ মার্চ ওই সেবিকার শরীরের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। রবিবার রাত সাড়ে ১০টায় জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেল থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের মিডিল সেল সূত্র জানায়, হাসপাতালের করোনাভাইরাস ইউনিটে ওই সেবিকা দায়িত্ব পালন করতেন। ৪ মে সোমবার নমুনা পরীক্ষা করা হলে তার শরীরে করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে। ওই দিন রাতেই তাকে হাসপাতালের করোনাভাইরাস ইউনিটে ভর্তি করা হয়। তিনি বর্তমানে সেখানেই চিকিৎধীন আছেন।

এছাড়া বরিশালে বসবাসকারী তার পরিবারের অন্য চার সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করে সোমবার মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। সন্ধ্যায় পাওয়া ফলাফলে ওই চারজনের শরীরের করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে। নগরীর অপর এক বাসিন্দার শরীরেও করোনা পজিটিভ আসে। তার স্বামী ঢাকায় অবস্থান করায় তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়নি।

বরিশাল জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান জানান, রিপোর্ট পাওয়ার পর পরই ওই পাঁচজন ব্যক্তির অবস্থান অনুযায়ী তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। এছাড়া তাদের আশপাশের বসবাসের অবস্থান নিশ্চিত করে লকডাউন করার প্রক্রিয়া চলচ্ছে। পাশাপাশি তাদের অবস্থান এবং কোন কোন স্থানে যাতায়াত ও কাদের সংস্পর্শে ছিলেন তা চিহ্নিত করার কাজ চলছে, সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ পর্যন্ত বরিশাল জেলায় ২২ জন নারী এবং ৩৪ জন পুরুষ মিলে মোট ৫৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

 

আরও