করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের বেতনের ভার নিল কানাডা সরকার

 করোনাভাইরাস মহামারি নিয়ন্ত্রণে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই চলছে লকডাউন। বেশিরভাগ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ, যান চলাচল, ঘর থেকে বের হওয়ায় রয়েছে কড়া নিষেধাজ্ঞা। কানাডায়ও এর ব্যতিক্রম নয়। সেখানে করোনা মহামারীতে অর্থনীতিতে সংকট অবস্থা বিরাজ করছে। এমন পরিস্থিতিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো কর্মজীবীদের পাশে দাাঁড়িয়েছেন। তিনি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কর্মীদের সহায়তায় জরুরি বেতন ভর্তুকি প্রকল্পের সময়সীমা আগামী আগস্ট মাস পর্যন্ত বাড়িয়েছেন। খবর বিবিসির।

শুক্রবার এক ঘোষণায় জাস্টিন ট্রুডো এমনটাই জানিয়েছেন। জানা গেছে, বেতন ভর্তুকি প্রকল্পের আওতায় যোগ্য প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মীদের ৭৫ শতাংশ মজুরির দায়িত্ব নিয়েছে দেশটির সরকার। প্রতিজনকে সপ্তাহে সর্বোচ্চ ৮৪৭ ডলার সহায়তার এ প্রকল্প শেষ হওয়ার কথা ছিল আগামী মাসে। তবে সংকট পুরোপুরি না কাটায় আগস্ট পর্যন্ত এ ভার বহনের কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো।

কানাডার অর্থমন্ত্রী বিল মর্নো জানিয়েছেন, এখন থেকে নিবন্ধিত সংবাদ সংস্থা, অ্যাথলেটিক সমিতি, সরকারি মালিকানাধীন আদিবাসী সংস্থা, আর্টস, ড্রাইভিং, ভাষা, ফ্লাইট স্কুলসহ বেসরকারি স্কুল-কলেজগুলোও বেতন-ভর্তুকি সহায়তার জন্য আবেদন করতে পারবে। যেসব প্রতিষ্ঠানের আয় মার্চে ১৫ শতাংশ এবং এপ্রিল-মে মাসে অন্তত ৩০ শতাংশ কমে গেছে তারাই এ প্রকল্পের আওতায় সহায়তার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে। তবে প্রয়োজনে এ নীতিতে পরিবর্তন আনা হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী।

 

আরও