সিলেটে করোনার উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু

 সিলেটের শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন সেন্টারে জ্বর, সর্দি-কাশিসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে ৫০ বছরের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি সিলেট মহানগর পুলিশের মোগলাবাজার থানা এলাকায়। মঙ্গলবার (১৯ মে) সন্ধ্যা সাতটায় তিনি মারা যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. জন্মেজয় দত্ত।

তিনি বলেন, ওই ব্যক্তি ডায়াবেটিস ও ব্লাডপ্রেশারসহ নানা রোগ নিয়ে একটি প্রাইভেট ক্লিনিক থেকে সোমবার শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি হয়েছিলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জ্বর, সর্দি-কাশি নিয়ে তিনি মারা যান।

নমুনা সংগ্রহ করে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাকে দাফন করা হবে।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বরে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস বাংলাদেশে ধরা পরে গত ৮ মার্চ। আর সিলেট বিভাগে সর্বপ্রথম করোনাভাইরাস ধরা পড়ে গত ৫ এপ্রিল। সিলেট বিভাগের প্রথম রোগী হিসেবে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন শনাক্ত হন। গত ১৫ এপ্রিল ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায়
তিনি মারা যান।

মঙ্গলবার (১৯ মে) রাত ১২টা পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৫৩ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ১৮৬ জন, সুনামগঞ্জে ৭৫, হবিগঞ্জে ১৩১ ও মৌলভীবাজার জেলায় ৬১ জন।

এদিকে, সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ১২৮ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ২৮ জন, সুনামগঞ্জে ৪১, হবিগঞ্জে ৫২ জন এবং মৌলভীবাজার জেলায় সাতজন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট বিভাগে মারা গেছেন সাতজন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় চারজন, হবিগঞ্জে একজন ও মৌলভীবাজারে দুইজন। তবে সুনামগঞ্জে এখন পর্যন্ত করোনায় কেউ মারা যাননি। বিভাগে বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৫৬ জন করোনা রোগী।

 

আরও