ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের দোয়া

মুসলমানের প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদ। ঈদুল ফিতরের চাঁদ দেখার পর থেকে শুরু হয় ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়। এ সময় এক মুমিন মুসলমানের সঙ্গে আরেক মুসলমানের দেখা-সাক্ষাৎ হলে বিশেষ একটি দোয়ার মাধ্যমে ভাব বিনিময় করতে হয়। যে দোয়া পরস্পরের কল্যাণ ও মঙ্গল কামনা করা হয়।

পরস্পরের দেখা-সাক্ষাতে শুভেচ্ছা বিনিময়ে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ দোয়াটি শিক্ষিয়েছেন। হাদিসে এসেছে, রাসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও তাঁর সাহাবাগণ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ে একে অপরকে বলতেন-

تَقَبَّلَ اللهُ مِنَّا وَ مِنْكُمْ

উচ্চারণ : তাক্বাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম।

অর্থ : আল্লাহ তাআলা আমাদের ও আপনার নেকা আমল তথা ভাল কাজগুলো কবুল করুন।

ন্যূনতম ঈদ মুবারক বলে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করা যায়।

রমজান মাসব্যাপী মুমিন মুসলমান সিয়াম সাধনায় কাটিয়েছেন। রমজানের পরবর্তী মাস শাওয়ালের প্রথম সন্ধ্যা থেকেই এক মুসলমান অপর মুসলমানের সঙ্গে দেখা হলেই পরস্পরের নেক আমলের কবুলের দোয়ায় শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

এতে আল্লাহ তাআলা এক মুমিন মুসলমানের জন্য অপর মুমিন মুসলমানের দোয়াকে কবুল করবেন। রমজানের রহমত বরকত মাগফেরাত ও নাজাত সাব্যস্ত করবেন।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে এ দোয়ার মাধ্যমে শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে পরস্পরের কল্যাণ ও মঙ্গল কামনা করর তাওফিক দান করুন। আমিন।

 

আরও