বিশ্বে করোনায় আক্রান্তে শীর্ষ ২০ এ বাংলাদেশ

 বাংলাদেশে প্রতিদিনই দুই হাজারের বেশি মানুষের শরীরে ধরা পড়ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। দেশে এই ভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬০ হাজার। তাতে উন্নতি হয়েছে বৈশ্বিক তালিকায়ও।

করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক পরিস্থিতি নিয়ে শুরু থেকে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোরের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন শীর্ষ ২০ এ।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৫৭ হাজার ৫৬৩ জন আক্রান্ত নিয়ে একুশতম স্থানে ছিল বাংলাদেশ। শুক্রবার আরও ২ হাজার ২২৮ নতুন আক্রান্ত যোগ হওয়ায় দেশে এখন কভিড-১৯ রোগী দাঁড়িয়েছে ৬০ হাজার ৩৯০ জনে। তাতে জনস হপকিন্সের তালিকায় কুড়িতম স্থানে উঠে আসে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ ওপরে উঠে আসায় একুশতম স্থানে নেমে গেছে ৫৮ হাজারের বেশি আক্রান্তের বেলজিয়াম।

৬৩ হাজার ৭৪১ জন আক্রান্ত নিয়ে বাংলাদেশের ঠিক ওপরে মধ্য প্রাচ্যের দেশ কাতার। আর ৬৪ হাজার ১৭১ জন আক্রান্ত নিয়ে আঠারোতম স্থানে আছে করোনাভাইরাসের আঁতুড়ঘর চীন।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে গড়ে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। বাংলাদেশে এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর খোঁজ মিলে ৮ মার্চ। এর দেশ দিন পর ঘটে করোনায় আক্রান্ত প্রথম মৃত্যু।

শুক্রবার সকাল আটটা পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ায় ৬০ হাজার। এদিন আরও ৩০ জনের মৃত্যুসহ মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮১১ জনে। বেড়েছে সুস্থ মানুষের সংখ্যাও। আরও ৬৪৩ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছেন ১২ হাজার ৮০৪ জন।

বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেওয়া সবশেষ হিসাব অনুযায়ী, দেশে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০.০৭ শতাংশ; মৃত্যুর হার ১.৩৪ শতাংশ এবং সুস্থতার হার ২১.০২ শতাংশ।

এদিকে, বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬৬ লাখ ৫৬ হাজার। মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩ লাখ ৯০ হাজার। আক্রান্ত ও মৃত্যু উভয় তালিকাতেই দেশ হিসেবে শীর্ষে আছে যুক্তরাষ্ট্র।

 

আরও