বিশ্বে করোনায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু ব্রিটেনে, ছাড়াল ৪০ হাজার

যুক্তরাজ্যে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৪০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে; যা যুক্তরাষ্ট্রের পর বিশ্বে দ্বিতীয় সর্বাধিক। শুক্রবার দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগের প্রকাশিত পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, ব্রিটেনে করোনাভাইরাসের পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসার পর মৃত্যু হয়েছে; এমন মৃত্যুর সংখ্যা ৪০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, হাসপাতাল, কেয়ার হোম এবং কমিউনিটিতে আরও ৩৫৭ জন করোনাভাইরাসে মারা গেছেন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৪০ হাজার ২৬১ জনের।

এই মুহূর্তে বিশ্বে করোনায় সর্বাধিক মৃত্যুর রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রের। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ১০ হাজার ৩০৬ জন; যা বিশ্বে সর্বোচ্চ প্রাণহানি। এরপরই করোনায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ প্রাণহানি ঘটেছে যুক্তরাজ্যে।

এর আগে, গত মার্চে ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন সরকারের প্রধান বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা স্যার প্যাট্রিক ভ্যাল্যান্স বলেন, করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ২০ হাজারের নিচে রাখতে পারলে সেটিই হবে ভালো ফলাফল।

বিশেষজ্ঞরা করোনায় মৃত্যুর সংখ্যায় দেশগুলোর অবস্থানের তুলনা এখনই করা উচিত নয় বলে সতর্ক করে দিয়েছেন। ইউরোপে করোনায় প্রথম মৃত্যুপুরীতে পরিণত হওয়া ইতালিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৩ হাজার ৬০০ জন।

ব্রাজিলে প্রকোপ দেরীতে শুরু হলেও করোনা প্রাণ কেড়েছে ৩৪ হাজার মানুষের। গত কয়েকদিনে দেশটিতে গড়ে এক হাজারের বেশি করে মানুষের মৃত্যু হয়েছে। যুক্তরাজ্যে পরীক্ষায় পজিটিভ ফল আসার পর কেউ মারা গেলেই কেবল সেটিকে করোনা মৃত্যু হিসেবে গণনা করা হয়।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৬৭ লাখ ৪৩ হাজারের বেশি মানুষ। এছাড়া মারা গেছেন তিন লাখ ৯৪ হাজারের বেশি। তবে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে উঠেছেন প্রায় ৩২ লাখ ৭৪ হাজারের বেশি মানুষ।

 

আরও