করোনাকালে বাজেট : অধিবেশনে থাকার সুযোগ পেলেন যে মন্ত্রী-এমপিরা

 করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতির মধ্যে জাতীয় সংসদে নতুন ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট উত্থাপন করা হয়েছে। প্রতিবার বাজেট উত্থাপন বেশ আড়ম্বরপূর্ণ আয়োজনে হলেও সংসদে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ায় এবার এ আয়োজন হয়েছে সীমিত পরিসরে। সংসদের সদস্য (এমপি) ৩৫০ জন হলেও বাজেট উত্থাপনের দিন আজ বৃহস্পতিবার (১১ জুন) অধিবেশনে যোগ দেয়ার জন্য তালিকাভুক্ত ছিলেন ৮৮ জন। দেশের ইতিহাসে এবারই প্রথম এতো অল্পসংখ্যক এমপির উপস্থিতিতে বাজেট পেশ হলো।

বিকেল ৩টায় কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুরু হয় বাজেট পেশ । রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের উপস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশগ্রহণে বাজেট পেশের এ অধিবেশন শুরু হয়। তার আগে প্রস্তাবিত বাজেট অনুমোদন সংক্রান্ত মন্ত্রিসভার বৈঠক হয়। এতে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ মাত্র ১০ জন অংশ নেয়ার সুযোগ পান। এদের মধ্যে নয়জন মন্ত্রী এবং একজন প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

জাতীয় সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভা কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই বিশেষ বৈঠকে অংশ নেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

সংসদ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তালিকা অনুসারে আগত সবাইকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করে সংসদ ভবন ও অধিবেশন কক্ষে ঢুকতে হয়েছে। এসময় সবাই মাস্ক পরে ছিলেন। সবার তাপমাত্রা মাপা হয়েছে। অধিবেশনে যোগ দিয়েছেন তালিকাভুক্তরাই। তালিকায় অসুস্থ ও বয়স্ক এমপিরা ছিলেন না।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আনসারসহ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন নিয়ে এমপি ও সংশ্লিষ্টদের মধ্যে আতঙ্ক কাজ করছে। কিন্তু বাজেট অধিবেশনে মত গুরত্বপূর্ণ বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়াও সম্ভব হচ্ছে না বিধায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে সতর্কতার সঙ্গেই এতে যোগ দিয়েছেন তালিকাভুক্তরা। আজ বৃহস্পতিবারের পর সামনের দিনগুলোতে কারা যোগ দেবেন, সে নির্দেশনাও রয়েছে। সেখানেও বয়স্ক ও অসুস্থ এমপিদের নাম থাকছে না বলে জানা গেছে।

এর আগে বাজেট অধিবেশন উপলক্ষে সংসদের কর্মকর্তাদের করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরীক্ষার নির্দেশনা দেয়া হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে নমুনা পরীক্ষা করা হলে ৪৩ জনের শরীরে তা শনাক্ত হয় । এছাড়া সংসদ সচিবালয়ে দায়িত্বরত ৮২ জন ব্যাটালিয়ন আনসার ও তিনজন পুলিশ সদস্যও করোনায় আক্রান্ত হন। তাছাড়া আট মন্ত্রী-এমপিও করোনায় আক্রান্ত হন। এসব বিষয় বিবেচনা করেই সংসদ অধিবেশন আয়োজনে এমন কড়া পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে সংসদের চিফ হুইপ নুর-ই-আলম চৌধুরী লিটন বলেন, করোনার কারণে বাজেট উত্থাপনের দিন ৮৮ জন এমপি তালিকাভুক্ত ছিলেন। কিন্তু অন্যরা যে আসতে পারবেন না বিষয়টা তা নয়। স্বাস্থ্যবিধি ও নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতেই এই ৮৮ জনকে আজ সংসদে আসার জন্য বলা হয়েছিল।

এদিকে প্রতিবার সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে বাজেট পেশ করা হতো এবং বাজেটের সার্বিক দিক দেশবাসীর সামনে তুলে ধরতেন তারা। কিন্তু এবারই প্রথম বাজেট উত্থাপনে সংসদে থাকা হয়নি সাংবাদিকদের। করোনার কারণে এ অধিবেশনে সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার রাখা হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ পার্লামেন্ট জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট উত্তম চক্রবর্তী বলেন, ৩০ বছর হয়ে গেল আমি সংসদ অধিবেশন কাভার করি। বাংলাদেশের সংসদীয় ইতিহাসের সাংবাদিক ছাড়া কখনোই বাজেট অধিবেশন হয়নি। এর আগে সংসদের সপ্তম অধিবেশনেও করোনার কারণে সাংবাদিকরা যেতে পারেননি। সংসদের একটি পার্ট হচ্ছেন সাংবাদিকরা। বাজেট অধিবেশনের মত গুরুত্বপূর্ণ এই অধিবেশনে কী হচ্ছে তা সারাদেশের মানুষের কাছে তুলে ধরেন সাংবাদিকরা। তাই সাংবাদিক এবং সংসদ অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। কিন্তু এবার প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে এমনটি হয়েছে।

তিনি বলেন, এই সংক্রমণের দায় কেউ নেবে না। এই সংক্রমণ সংসদ সদস্যদের মাধ্যমে হতে পারে আবার সাংবাদিকদের মাধ্যমেও হতে পারে, আবার সংসদে কর্মরতদের মাধ্যমেও হতে পারে। এসব চিন্তাভাবনা থেকেই সাংবাদিকদের সংসদ অধিবেশন কাভার না করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। আর ডিজিটাল ব্যবস্থা আছে বলেই এটা সম্ভব হয়েছে। ডিজিটাল ব্যবস্থা না হলে সীমিত পরিসরে হলেও সাংবাদিকদের জন্য ব্যবস্থা করা হতো

সংসদের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমি প্রায় ২৯ বছর ধরে সংসদে চাকরি করি। কিন্তু সাংবাদিকবিহীন কোনো অধিবেশন হতে দেখিনি। এবারই প্রথম করোনার কারণে দুটি অধিবেশনে সাংবাদিকরা আসতে পারেননি।

 

আরও