বিয়ের প্রলোভন দিয়ে কলেজছাত্রী ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

 কুমিল্লার দাউদকান্দিতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া (২৪) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা দায়েরের পর ধর্ষক জাহিদুল ইসলামকে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। আটক জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া উপজেলার মারুকা ইউনিয়নের কাটরাপাড়া গ্রামের আলী নেওয়াজ ভূঁইয়ার ছেলে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী সূত্র জানায়, একই গ্রামের কলেজ পড়ুয়া দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিভিন্ন সময় শারীরিক সম্পর্ক করার চেষ্টা করে জাহিদুল। পরে গত বুধবার ওই ছাত্রীর মা-বাবা বাড়িতে না থাকায় রাত সাড়ে ১০টায় জাহিদুল তাদের বাড়িতে যায় এবং জোর করে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগে জানা যায়। বিষয়টি তার ছোট ভাই দেখে ফেলে বাড়ির ও এলাকার লোকজন ডেকে আনতে গেলে এ ঘটনা যেন কাউকে না জানাই হুমকি দিয়ে জাহিদুল পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে জাহিদুল তাকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেয়। পরে আইনের আশ্রয় নেয় ভূক্তভোগী।

দাউদকান্দি মডেল থানার এসআই গোলাম আজম জানান, বরকোটা স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থী ওই শিক্ষার্থীকে বিয়ের প্রলোভনে দেখিয়ে জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া শারিরীক সম্পর্ক করে। পরে তাকে বিয়ে করবে না বলে জানালে ওই ছাত্রী থানায় একটি ধর্ষণের অভিযোগ দেন। গতকাল বৃহস্পতিবার তার বাড়ি থেকে জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়াকে আটক করা হয়েছে। ওই ছাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

আরও