হাসপাতালে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে. পি শর্মা অলি

হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে. পি শর্মা অলিকে। বুধবার দেশটির রাজধানী কাঠমাণ্ডুর শহীদ গঙ্গালাল ন্যাশনাল হার্ট সেন্টারে তাকে ভর্তি করা হয়।

কে. পি শর্মা অলির গণমাধ্যমবিষয়ক উপদেষ্টা সূর্য থাপা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীকে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার অংশ হিসেবে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

সীমান্তে বিতর্কিত ভূখণ্ড নিজেদের মানচিত্রে যুক্ত করা নিয়ে প্রতিবেশি ভারতের সঙ্গে উত্তেজনা চলছে, ঠিক তখনই দেশে নিজ দলের ভেতরে কে. পি শর্মার পদত্যাগের দাবি উঠেছে। দেশটির ক্ষমতাসীন নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির জ্যেষ্ঠ কয়েকজন নেতা প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি তোলার পর মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠক ডেকেছিলেন অলি।

দলের কো-চেয়ারম্যান পুষ্প কামাল দহল, মাধব নেপাল, ঝালানাথ খানাল ও বামদেব গৌতমসহ জ্যেষ্ঠ আরও কয়েকজন নেতা বিভিন্ন ইস্যুতে ব্যর্থতার অভিযোগ এনে প্রধানমন্ত্রী অলিকে পদত্যাগের আহ্বান জানান।

গত মার্চের শেষের দিকে নেপালের এই প্রধানমন্ত্রীর হার্টের সমস্যা দেখা দিলে ত্রিভূবন ইউনিভার্সিটি টিচিং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেই সময় ব্যক্তিগত চিকিৎসক দিব্য সিং প্রধানমন্ত্রী অলিকে মনমোহন কার্ডিওথোরাসিস ভাসকুলার অ্যান্ড ট্রান্সপ্ল্যান্ট সেন্টারে পর্যবেক্ষণে রাখা হয় বলে নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ওই হাসপাতালে কোভিড-১৯ সংক্রমণের ক্রমবর্ধমান ঝুঁকি রয়েছে। যে কারণে আমরা তাকে পূর্ব সতর্কতা হিসেবে স্থানান্তর করেছি। তবে বর্তমানে তার স্বাস্থ্য স্বাভাবিক রয়েছে, দুশ্চিন্তার কিছু নেই।

মার্চের শেষের দিকে নেপালের এই প্রধানমন্ত্রীর কিডনি জটিলতা দেখা দেয়। সেই সময় তার ভাতিজি সমীক্ষা সাংরাওলা একটি কিডনি দান করলে তা ট্রান্সপ্ল্যান্ট করা হয়।

 

আরও