সর্বশেষ

চীনা কোম্পানির সঙ্গে আইপিএলের সম্পর্ক ছিন্ন হোক

চীনা কোম্পানিগুলোর সঙ্গে আইপিএল তথা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সম্পর্ক নিয়ে চলছে তুমুল পাল্টাপাল্টি অবস্থান। নানা মহল থেকে বিসিসিআইর কাছে দাবি তোলা হচ্ছে, অবিলম্বে আইপিএলের সঙ্গে যেন চীনা কোম্পানিগুলোর সম্পর্ক ছিন্ন হয়; কিন্তু বিশাল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন হতে হবে, তাই চীনা কোম্পানির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার কোনো চিন্তাই করছে না বিসিসিআই।

তবে, আইপিএলের অন্যতম ফ্রাঞ্চাইজি কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কো-ওনার নেস ওয়াদিয়া কোনোভাবেই মানতে রাজি নন, চীনাদের সঙ্গে আইপিএলের সম্পর্ক চলতে থাকুক। তিনি সরাসরি বলে দিয়েছেন, আমি চাই, চীনা কোম্পানির সঙ্গে আইপিএলের সম্পর্ক ছিন্ন হোক।

লাদাখ সীমান্তে চীনা সেনাদের হামলায় ভারতের ২০ জন সেনা নিহত হওয়ার পরই ভারতজুড়ে ক্ষোভ উগড়ে পড়ে চীনের ওপর। চীনা পণ্য বয়কটের দাবি তুলছে ভারতীয়রা। আইপিএলের প্রধান স্পনসর ভিভোর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার দাবিও উঠেছে।

এর মধ্যেই সোমবার টিকটকসহ ৫৯টি চীনা অ্যাপকে ভারতে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি যখন এই, তখন আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজি কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অন্যতম মালিক নেস ওয়াদিয়াও চীনা পণ্য বয়কটের দাবি তুলেছেন। তার স্পষ্ট দাবি, ভিভোর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা হোক।

শুধু ভিভোই নয়, একাধিক চীনা স্পন্সর যুক্ত রয়েছে আইপিএলের সঙ্গে। এই মুহূর্তে যদি সম্পর্ক ছিন্ন করা হয়, তাহলে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের যথেষ্ট ক্ষতি হবে। অবশ্য নেস ওয়াদিয়া বলেছেন, দেশের কথা আগে ভাবা উচিত। চীনা পণ্যের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা দরকার। দেশ আগে। টাকা নয়। আর এটা ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ, চাইনিজ প্রিমিয়ার লিগ নয়।

ওয়াদিয়া আরও বলেছেন, সম্পর্ক ছিন্ন করলে নতুন স্পনসর পাওয়া হয়তো কঠিন হবে। তবে আমি আশাবাদী, প্রচুর ভারতীয় কোম্পানি আগ্রহ দেখাবে। দেশ ও সরকারের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানো উচিত। সবচেয়ে বড় কথা সেনারা আমাদের সুরক্ষিত রাখার জন্যই এত ঝুঁকি নিচ্ছে।

ভিভো ছাড়াও পে-টিএম, সুইগি, ড্রিম ১১-এর মতো চীনা কোম্পানিগুলো আইপিএলের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজির সঙ্গেও জড়িয়ে আছে চীনা কোম্পানিগুলো। সুতরাং, পরিস্থিতি এখন কোন দিকে গড়ায়, সেটাই দেখার বিষয়।

 

আরও