ট্রাম্পকে টেলিফোনে কী বললেন সৌদি বাদশাহ?

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজের মধ্যে টেলিফোনে কথা হয়েছে।

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, ফোনালাপে সৌদি বাদশাহ স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের প্রশ্নে রিয়াদের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন।

১৯৭৯ সালে মিসর ও ১৯৯৪ সালে জর্ডানের পর তৃতীয় আরব রাষ্ট্র হিসেবে গত ১৩ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্ততায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তি স্বাক্ষরের ঘোষণা দেয় সংযুক্ত আরব আমিরাত। ১৬ আগস্ট সচল হয় দুই দেশের টেলিফোন যোগাযোগ। সবশেষ দুই দেশের মধ্যে নিয়মিত বিমান চলাচল চালু হলে সৌদি আরব তাদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দেয়।

নিউজউইককে দেয়া সাম্প্রতিক এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের জামাতা জ্যারেড কুশনার বলেন, আমিরাতের পর সৌদি আরবসহ উপসাগরীয় বাকি দেশগুলোও ইসরায়েলের সঙ্গে অনিবার্যভাবে চুক্তি করবে। তবে ট্রাম্পের সঙ্গে ফোনালাপে সৌদি বাদশাহ সালমান বলেছেন, দেশটি ফিলিস্তিনিদের জন্য একটি ন্যায্য এবং স্থায়ী সমাধান দেখতে চায়, যা ছিল ২০০২ সালে আরব পিস ইনিশিয়েটিভ শুরুর মূল কারণ।

আরব শান্তি উদ্যোগের আওতায়, ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে রাষ্ট্রীয় চুক্তি এবং ১৯৬৭ সালের মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধের পর দখল করা অঞ্চল থেকে ইসরায়েল নিজেদের পুরোপুরি প্রত্যাহার করলে, বিনিময়ে আরব দেশগুলো ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করবে।

এদিকে হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র জানান, ওই ফোনালাপে ট্রাম্প বাদশাহ সালমানের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান এবং পরে তারা আঞ্চলিক সুরক্ষা নিয়েও আলোচনা করেন।

 

আরও