কানাডা টরন্টোতে বাংলাদেশীদের জন্য একটি নির্ভরযোগ্য ফিউনারেল হোম গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

প্রিয় টরন্টো বাসি,

আসসালামু আলাইকুম।এই বছরের প্রথম দিকে যখন করোনা ভাইরাসের মহামারী শুরু হয় তখন প্রতি দিনই নিজের পরিচিত কাছের মানুষের মৃত্যুর খবর পাচ্ছিলাম। করোনা পূর্ববর্তী মৃত প্রিয়জনদের জানাযা, দাফন কাফন আমরা সবাই মিলে করতে পারলেও করোনা কালিন সময়ে এবং বিশেষ করে করোনায় মৃতদের দাফন কাফন করার পরিস্থিতি ছিল সম্পূর্ন ভিন্ন।সেই সময়ে খসরুজ্জামান চৌধুরী দুলু ভাইয়ের নেতৃত্বে আমরা কয়েকজন মিলে কমিউনিটিতে ফিউনারেলের কাজ শুর করি এবং কমিউনিটির অনেক প্রিয় মানুষদের শেষ বিদায় জানাই।আমাদের এই প্রচেষ্টাতে অনেকেই সাহায্য করেছেন এবং মন খুলে আমাদের জন্য দোয়া করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ সেই থেকে এখন পর্যন্ত আমরা কমিউনিটির জন্য ফিউনারেলের কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।আল্লার কাছে প্রার্থনা, উনি যেনো আমাদের সবার দীর্ঘায়ু দান করেন। আল্লাহ না করুক, যদি আমাদের কমিউনিটির কেউ মৃত্যুবরণ করেন, তা হলে আমরা আমাদের “ Canadian Bangladeshi Islamic Funereal Services” এর মাধ্যমে মৃত ব্যাক্তিকে অতি অল্প সময়ে হাসপাতাল থেকে জানাযা এবং দাফন পর্যন্ত সর্বাত্বক সহায়তা দিতে পারবো এবং আমরা প্রয়োজনে এই কাজে আর্থিক ভাবেও সাহায্য করতে পারবো ইনশাআল্লাহ্।
আপনারা জানেন ইতিমধ্যেই আমাদের ব্যাবস্থাপনায় আমরা রিচমন্ডহিল মুসলিম সেমেট্রিতে প্রায় তিনশো কবরের সমন্বয়ে একটি বাংলাদেশী গোরস্থান ক্রয় করতে পেরেছি এবং ভবিষ্যতে এটি যে আরো বড় হবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই । আল্লার সাহায্য আর সকলের এগিয়ে আসাতে মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই তা সম্পন্ন হয়েছে ।

এই দাফন কাফনের কাজ করতে গিয়ে একটি জিনিসের প্রচন্ড অভাব অনুভব করেছি তা হলো নিজেদের না থাকা একটি ফিউনারেলে হোম।প্রিয়জনের মৃত্যুর পর তাদের শেষ বিদায়ের আয়োজনে আমাদের দৌড়াতে হয় ভিনদেশি দ্বারা পরিচালিত বিভিন্ন ফিউনারেল হোমের কাছে।অবশ্যই তা দোষের কিছু নয়, তবে আমাদের কালচারে প্রিয়জনের শেষ বিদায়ে আমরা যে ভাবে সম্মান ও যত্ন সহকারে দাফন কাফন দেখে এসেছি তার কমতি কিন্তু বোধ করছি।টরন্টোতে আজ পর্যন্ত বাংলাদেশীদের দ্বারা পরিচালিত কোনো ফিউনারেল হোম নেই। কমিউনিটি হিসেবে আমাদের কমতি কিসে? আমরা, আমাদের ছেলে মেয়েরা অন্য দশটি কমিউনিটির সাথে পাল্লা দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি এবং মাশাআল্লাহ্ ভালই করছি, তা হলে আমরা কেনো পারবোনা নিজেদের জন্য একটি ফিউনারেল হোম করতে? মাত্র কয়েক সপ্তাহের প্রচেষ্টায় যদি একটি গোরস্থান করা যায় তা হলে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় একটি বাংলাদেশী ফিউনারেল হোম করা যাবে বলেই আমরা বিশ্বাস করি।
বাংলাদেশি কমিউনিটির নিজস্ব একটি ফিউনারেল হোম এখন সময়ের দাবি, আর সেই দাবি বুকে ধারন করে আমরা সমপূর্ন বাংলাদেশীদের দ্বারা পরিচালিত আমাদের নিজস্ব একটি ফিউনারেল হোম করার স্বপ্ন নিয়ে মাঠে নেমেছি। স্বজন হারানোর প্রচন্ড দুখের দিনে কোনো পরিবারকে যেনো দাফন কাফন নিয়ে কোনো সমস্যায় পড়তে না হয় সেই একচিলতে স্বস্তির স্থান হবে আমাদের এই ফিউনারেল হোম এমনই স্বপ্ন দেখছি আমরা। অতীতের সকল কাজে আপনারা যে ভাবে এগিয়ে এসেছিলেন আমাদের বিশ্বাস এবারও আপনারা এগিয়ে আসবেন এবং আমাদের জন্য অন্তর থেকে দোয়া করবেন। আপনারা সবাই এগিয়ে আসলে মহান রবের কৃপায় অবশ্যই আমরা আমাদের জন্য এই শহরে একটি ফিউনারেল হোম করতে পারবো।
বিস্তারিত জানতে ও পরামর্শ প্রদানে যোগাযোগ করুন:
খসরুজ্জামান চৌধুরী দুলু -416- 897-9184
কোহিনূর ইসলাম তানবীর – 647-501-0249
নিজাম এনায়েত হোসেন এনু – 416-200-8698

আরও