চোখ খোলার চেষ্টা করেছেন সৌমিত্র

শারীরিক সক্ষমতার কথা বিবেচনা করে শুক্রবার প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের ডায়ালাইসিস না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিকিৎসকরা। শনিবার তার শারীরিক অন্যান্য পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এ বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করবেন তারা।

কিডনির সমস্যার কারণে বুধ ও বৃহস্পতিবার দুই বার সৌমিত্রের ডায়ালাইসিস করা হয়েছে। তার হিমোগ্লোবিন ও প্লাটিলেট কাউন্ট নতুন করে কমেনি। তবে স্বাভাবিকের চেয়ে প্লাটিলেট কাউন্ট এখনও কম।

হিমোগ্লোবিন কম থাকায় শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে রক্ত দেওয়া হয়েছে। তার মস্তিষ্ক এখনও স্বাভাবিকভাবে সাড়া দিচ্ছে না। ফলে শুক্রবার নিয়ে টানা নয়দিন মস্তিকের সাড়া মেলেনি। সম্পূর্ণ লাইফ সার্পোটেই রয়েছেন তিনি।

শুক্রবারের মেডিক্যাল বুলেটিন অনুযায়ী, সকালের দিকে চোখ খোলার চেষ্টা করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। চিকিৎসার পরিভাষায় যাকে বলা হয় অবচেতন মনে। গত ২৪ ঘণ্টায় তার মূত্র যথেষ্ট পরিমাণে হয়েছে। নতুন করে কোনো রক্তক্ষরণ হয়নি। পরপর দুই বার ডায়ালাইসিসের পর রক্তে ইউরিয়া ও ক্রিয়েটিনিন একটু কম।

এদিন সৌমিত্র চট্টপাধ্যায়ের রক্তচাপ ঠিক আছে বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। অ্যান্টিবায়োটিক ও অন্যান্য ওষুধ ও স্টেরয়েড চলছে। ভেন্টিলেশনে অক্সিজেন স্যাচুরেশন ৯৮ শতাংশ।

করোনামুক্ত হলেও শারীরিক দুর্বলতা এবং বার্ধক্যজনিত কারণে তার শারীরিক উন্নতি বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে বলে চিকিৎসকদের মত। গত ৬ অক্টোবর করোনা শনাক্ত হয়ে দক্ষিণ কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৮৫ বছর বয়সী এই অভিনেতা। তবে করোনাকে হারিয়ে মধ্যবর্তী সময়ে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলেও গত কয়েক দিনে আবারও তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে।

 

আরও