গজারিয়ায় বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধার, আটক ৭

পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চলাকালীন মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী ব্রিজের কাছে একটি মাইক্রোবাস থেকে বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় গজারিয়া থানায় ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৭ জনকে।

নির্বাচনের দিন বুধবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৯টার দিকে একটি মাইক্রোবাস থেকে এসব অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা আগ্নেয়াস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ৬টি শটগান, ১০টি পিস্তল, ৫৬টি তাজা শটগানের কার্তুজ, ২৪টি খালি কার্তুজ, একটি চাকু, দুটি লাঠি ও ৬টি ব্যাগ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী মনিরুল হক মিঠুর বড় ভাই ড. ইকবাল হক স্বপন অস্ত্রসহ বহিরাগত লোকজন এনে ভোটকেন্দ্রে ত্রাস সৃষ্টির ‌চেষ্টা করছিলেন। হোসেন্দী ব্রিজ এলাকা থেকে স্থানীয়রা তাদের ধরে মারধর করে। পরে পুলিশ ও বিজিবি অস্ত্রসহ তাদের আটক করে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নৌকার প্রার্থী মনিরুল হক মিঠুর বড় ভাই ড. ইকবাল হক স্বপন, বাগেরহাটের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে রেজাউল, গোলাম আলীর ছেলে আমির হোসেন, গাজীপুরের আব্দুল মালেকের ছেলে শামসুল ইসলাম, বগুড়ার জসিম উদ্দিনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম এবং আব্দুল হালিমের ছেলে জাহাঙ্গীর।

গজারিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শামসুল আলম বলেছেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনার দিন সকালে এই সমস্ত লোকদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিতে নিয়ে আসে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আমাদের জানিয়েছে, এলাকাবাসী অস্ত্রসহ এদের ধরে মারধর করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে সোপর্দ করেছে।

এ ব্যাপারে গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রইছ উদ্দিন বলেন, ওই ঘটনায় ৮ জনের বিরুদ্ধে গজারিয়া থানায় একটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, একজন পলাতক।

আরও