আ. লীগ আর করোনার মধ্যে পার্থক্য নাই: রিজভী

 আওয়ামী লীগ আর করোনার মধ্যে কোনো পার্থক্য নাই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে ‘বিএফইউজের সাবেক সভাপতি রুহুল আমিন গাজীর মুক্তির দাবিতে’ আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ আর করোনার মধ্যে কোনো পার্থক্য নাই। করোনা যেমন রূপান্তর হচ্ছে আওয়ামী লীগও নিজে রূপান্তর ঘটায়। এই দুটি মানুষের জীবন কেড়ে নেয়। আওয়ামী লীগও মানুষের জীবন কেড়ে নেয় এবং করোনাও মানুষের জীবন কেড়ে নেয়।

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ চেষ্টা করছে বাংলাদেশ থেকে অপজিশন কণ্ঠস্বরকে একেবারে নিশ্চিহ্ন করার। বাংলাদেশের সবচাইতে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিনা কারণে কারাগারে আটকে রেখেছে। যে মামলায় কোনো সত্যতা নাই, কোনো প্রমাণ নাই এবং কোনোভাবে প্রমাণ করতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুধু গায়ের জোরে বন্দি করে বিনা চিকিৎসায় তাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছেন।

তিনি বলেন, আল্টিমেটলি যে নির্বাচন কমিশন গঠন হবে, সেখানে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক প্রতিফলন ঘটবে। তারা একটা তামাশা করে যাচ্ছে। কারণ প্রত্যেকটার পেছনেই তার ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার চিরদিন টিকে থাকার জন্য যা কিছু করার তিনি সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু সেইটাতে আর লাভ হবে না। বাংলাদেশের মানুষ তো জানেই আস্তে আস্তে বিশ্বের কাছে সরকারের বোরকা খুলতে শুরু করেছে।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে রিজভী বলেন, আপনার সরকারের বোরকা সম্পূর্ণ খোলার আগে পদত্যাগ করুন। বিএনপি চেয়াপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন, তাকে সুচিকিৎসার সুযোগ দিন। রুহুল আমিন গাজীকে মুক্তি দিন। বিএফইউজের সভাপতি এম আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে এবং ডিইউজের সাংগঠিনক সম্পাদক দিদারুল আলম ও প্রচার সম্পাদক খন্দকার আলমগীর হোসাইনের সঞ্চালনায় সমাবেশে বিএফইউজের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, বর্তমান মহাসচিব নুরুর আমিন রোকন, ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক বাকের হোসাইন, সহ-সভাপতি শাহীন হাসনাত, বাছির জামাল, রাশেদুল হক, বিএফইউজের কোষাধ্যক্ষ খায়রুল বাশার, সাবেক দপ্তর সম্পাদক আবু ইউসুফ, ডিইউজের দপ্তর সম্পাদক ডি এম আমিরুল ইসলাম অমর, বিএফইউজের নির্বাহী সদস্য আব্দুস সেলিম, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন ইবনে মঈন চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি মোরসালিন নোমানী, বিএফইউজের দপ্তর সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ, নির্বাহী সদস্য একেএম মহসিন, জাকির হোসেন, ডিইউজের যুগ্ম সম্পাদক শাহজাহান সাজু, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক (গাজী আনোয়ার), জনকল্যাণ সম্পাদক দেওয়ান মাসুদা সুলতানা, নির্বাহী সদস্য মো. শহিদুল ইসলাম, জেসমিন জুঁই, আব্দুল হালিম প্রমুখ।

আরও