ফুটবলের গায়ে উপাচার্যের নাম লিখে খেললেন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

সংঘর্ষ, বিক্ষোভ, অবরোধ, অনশন, স্লোগান প্রভৃতিতে গত ১২ দিনের উত্তাল ক্যাম্পাস এখন অনকেটাই শান্ত। চিরচেনা রূপে ফিরেছে ক্যাম্পাস। তবে দাবি আদায় থেকে পিছু হঠেনি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা। শুধু আন্দোলনের ধরণ পরিবর্তন করেছেন তারা।

এবার উপাচার্যবিরোধী প্রতিবাদী প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করে সেটাই জানান দিলেন শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল গ্রাউন্ডে উপাচার্য বিরোধী প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়।

খেলার শুরুর আগে ফুটবলের গায়ে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদকে উল্লেখ করে ‘ফরিদ’ লিখেন। এরপর উপাচার্যের নাম লেখা ফুটবল নিয়ে শুরু হয় খেলা! বিষয়টি আন্দোলনকারীরা প্রতিবাদ হিসেবে দেখলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষক-কর্মকর্তারা ভালোভাবে নেননি। একজন শিক্ষকের (উপাচার্য) নাম ফুটবলের গায়ে লিখে খেলাটা অতিরিক্ত বাড়াবাড়ি এবং খুবই বেমানান বলে মন্তব্য করেছেন।

গত ১৩ জানুয়ারি থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রভোস্ট কমিটির পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা।

এরপর ১৬ জানুয়ারি বিকেলে তিন দফা দাবি আদায়ে উপাচার্যকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে অবরুদ্ধ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে পুলিশ উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই সময় পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড, টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হন। এ ঘটনায় পুলিশ ৩০০ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা করে।

এরপর শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের হামলার ঘটনায় উপাচার্যকে দায়ী করে তার পদত্যাগ দাবি করে এতদিন আমরণ অনশনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি চালিয়ে আসছিলেন শিক্ষার্থীরা। বুধবার (২৬ জানুয়ারি) টানা সাতদিনের অনশন ভাঙলেও উপাচার্যের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে অহিংস আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা৷

আরও