আ.লীগ নেত্রীর লেডিস ক্লাব গুঁড়িয়ে দিল রাজউক

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগ নেত্রী ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌসী আলম নীলার নির্মিত ‘পূর্বাচল লেডিস ক্লাব’ ও ‘লাভ ফরেস্ট রেস্টুরেন্ট’ গুঁড়িয়ে দিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। বুধবার (১০ আগস্ট) দিনভর অভিযান চালিয়ে স্থাপনাটি উচ্ছেদ করা হয়।

পূর্বাচলের ১৩ নম্বর সেক্টরে খেলার মাঠ দখল করে এবং আবাসিক প্লটে ওই ক্লাবের স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছিল। গত ৪ আগস্ট ফেরদৌসী আলম নীলার বিরুদ্ধে পূর্বাচলের বিভিন্ন জমি দখলের অভিযোগে তাকে জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা সম্পাদক পদ থেকে অব্যাহতি দেয় নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ।

অভিযানে অংশ নেওয়া রাজউকের কর্মকর্তারা জানান, পূর্বাচল ১৩ নম্বর সেক্টরের ৩০৫ নম্বর রোডে প্রায় তিন বিঘা জমি প্রতিবন্ধীদের খেলার মাঠ হিসেবে সংরক্ষণ করেছিল রাজউক। এখান থেকে দুই বিঘা নীলা দখল করে তৈরি করেছেন পূর্বাচল লেডিস ক্লাব। ইতোমধ্যে ২ শতাধিক সদস্যের ক্লাবটির সদস্যপদ বিক্রি হয় তিন লাখ টাকায়। আজীবন সদস্যপদ পেতে চার লাখ আর দাতা সদস্যপদ বেচাকেনা হয় ছয় লাখ টাকায়।

জানা যায়, পূর্বাচল লেডিস ক্লাব অভিজাত শ্রেণির ক্লাবে পরিণত হয়েছিল। ক্লাবটিতে ধনীদের যাতায়াত ছিল। চারপাশে সীমানা দিয়ে ভেতরে বানানো হয়েছিল সুইমিং পুল, অফিস কক্ষ, ব্যায়ামাগারসহ কয়েকটি অবকাঠামো। ক্লাবটি গড়ে তুলে নীলা নিজেই বসেন ক্লাবের সভাপতির পদে।

রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল ইসলামের নেতৃত্বে চালানো উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন রাজউকের জোন-৪ এর পরিচালক মুকসুদুল আরেফিন, অথরাইজড অফিসার মাসুক আহমেদ। বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্য অভিযানে অংশ নেন।

তারা জানান, রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌসী আলম নীলাসহ স্থানীয় কিছু ব্যক্তি নিজেদের প্রভাবকে কাজে লাগিয়ে অবৈধভাবে রাজউকের জমিতে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করে দখল করে রেখেছেন। বিষয়টি রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নজরে এসেছে। পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বুধবার পূর্বাচলের ১৩ নম্বর সেক্টরে অভিযান চালিয়ে নীলার লেডিস ক্লাব এবং ২৪ নম্বর সেক্টরে লাভ ফরেস্ট রেস্টুরেন্টের সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

 

আরও