তুরস্কে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় উদ্ধারকর্মীসহ নিহত সংখ্যা ৩২

 তুরস্কে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় ৩২ জন নিহত হয়েছেন। এসব দুর্ঘটনায় ৫১ জন আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার সকালে তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর গাজিয়ান্তেপে প্রথম দুর্ঘটনাটি ঘটে। এর কয়েক ঘণ্টা পর সেখান থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরের শহর মারদিনে আরেকটি দুর্ঘটনা ঘটে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, গাজিয়ান্তেপের ঘটনায় নিহতদের মধ্যে অগ্নিনির্বাপক কর্মী, উদ্ধারকর্মী ও সাংবাদিক রয়েছেন। মারদিনের দুর্ঘটনাটি ঘটেছে মানুষের ভিড়ের মধ্যে একটি লরি ওঠে যাওয়ার মধ্য দিয়ে। তবে তাৎক্ষণিক এই দুই ঘটনার মধ্যে কোনো যোগসাজশ পাওয়া যায়নি।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গাজিয়ান্তেপে প্রথমে একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় পড়ে। তখন সেখানে উদ্ধার তৎপরতা চালাতে ছুটে আসেন অগ্নিনির্বাপক ও জরুরি বিভাগের উদ্ধারকর্মীরা। পাশাপাশি ওই দুর্ঘটনার খবর সংগ্রহ করতে সেখানে সাংবাদিকেরাও উপস্থিত হন। আর ঠিক এমন সময়ই সেখানে দ্রুতগতির একটি বাস উপস্থিত লোকদের জটলার মধ্যে উঠে যায় এবং প্রায় ২০০ মিটার দূরে গিয়ে উল্টে যায়।

ওই দুর্ঘটনার একটি ছবিতে দেখা গেছে, বাসটির গতি এত দ্রুত ছিল এর ধাক্কায় সেখানে থাকা একটি অ্যাম্বুলেন্স দুমড়ে-মুচড়ে গেছে।

গাজিয়ান্তেপের গভর্নর এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, সেখানকার বাসচাপায় ১৬ জন নিহত ব্যক্তির মধ্যে তিনজন অগ্নিনির্বাপক কর্মী, দুজন জরুরি উদ্ধারকর্মী ও দুজন সাংবাদিক রয়েছেন।

তুরস্কের সাংবাদিক ইউনিয়নও ওই ঘটনায় দুজন সাংবাদিক নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে। এখানকার দুর্ঘটনায় আহত মানুষের সংখ্যা ২১ জন। দেশটির বিচারমন্ত্রী এই ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন।

দ্বিতীয় দুর্ঘটনার বিষয়ে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানিয়েছেন, ১৬ ব্যক্তি নিহতের পাশাপাশি ২৯ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে আটজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আরও