পাঁচজনকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের

কক্সবাজারের টেকনাফের পাহাড়ি এলাকা থেকে পাঁচ কৃষককে অপহরণের পর মুক্তিপণ দাবি করেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা। বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পানখালী ও মরিচ্যাঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘গতকাল আমার এলাকার পাঁচজন কৃষককে পাহাড়ি এলাকা থেকে অপহরণ করে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা। এর মধ্যে তিনজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। তারা বর্তমানে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। আর বাকী দুইজনের এখনো খোঁজ মেলেনি। একটি মুঠোফোন নম্বর থেকে কল করে মুক্তিপণ হিসেবে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করা হলেও নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।’

তিনি আরও জানান, পাঁচজনের প্রত্যেকের পরিবারে ফোন করে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। টাকা না পেয়ে তারা কৃষক শাহজাহানকে গুলি করে। এ ছাড়া আবু বক্কর ও মেহেদী হাসানকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে অপহরণকারীরা। পরে ওই কৃষকদের স্বজনরা দলবেঁধে ঘটনাস্থলের দিকে গেলে আহত তিনজনকে ফেলে সন্ত্রাসীরা নজির আহমদ ও তার ছেলে মোহাম্মদ হোসেনকে অস্ত্রের মুখে পাহাড়ের ভেতরের দিকে ধরে নিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে মো. শাহজাহান, আবু বক্কর ও মেহেদী হাসানকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়।

আরও